শিক্ষক হত্যা-লাঞ্ছনা জাতির জন্য লজ্জাজনক: শিক্ষা উপমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৩৬ পিএম, ৩০ জুন ২০২২
শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল বলেছেন, শিক্ষককে হত্যা ও লাঞ্ছনা জাতির জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক; শিক্ষক সমাজের জন্য দুঃখজনক।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) সকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে ‘শিক্ষক নির্যাতন, হত্যাকাণ্ড: ভূলুণ্ঠিত বিবেক ও মানবতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে তিনি এ মন্তব্য করেন। স্বাধীনতা শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশন এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে যে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে, তার প্রতি আমরা নজর রাখছি। প্রধানমন্ত্রীও এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের জবাবদিহির আওতায় আনার নির্দেশ দিয়েছেন। এরই মধ্যে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। অভিযুক্তকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

নড়াইলের ঘটনার বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা এরই মধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। কমিটির সদস্যরা দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবেন। এরই মধ্যে জড়িতদের গ্রেফতার করা হয়েছে। দোষীদের ধরতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেই তদারকি করছেন।

নওফেল আরও বলেন, আমরা শিক্ষকদের সঙ্গে আছি। তারা আমাদের কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধেয়। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, শিক্ষকদের মর্যাদা ও সম্মানের প্রশ্নে সরকার তাদের সঙ্গে রয়েছে।

স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের (স্বাশিপ) সভাপতি অধ্যাপক ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সাবেক উপাচার্য ও পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, একুশে পদকপ্রাপ্ত জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক অজয় দাসগুপ্ত, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. ওয়াহিদুজ্জামান চাঁন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ গোলাম ফারুক, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের (স্বাশিপ) সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু প্রমুখ।

আর এস এম/এসএএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]