ইউজিসিতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে জনবল বরাদ্দবিষয়ক সভা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৯ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে জনবল বরাদ্দ নিয়ে ইউজিসির সভা

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনে (ইউজিসি) দেশের ৫৩টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ২৬টি থেকে প্রাপ্ত জনবল চাহিদার বিষয়ে সভা হয়েছে। এ সভায় প্রথমবারের মতো ৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ে টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালার আলোকে জনবল অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) ইউজিসির জনবল বরাদ্দ কমিটির উদ্দোগে এ সভা করা হয়।

কমিশনের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. দিল আফরোজা বেগমের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন- ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর, অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ, অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের, কমিশনের সচিব ড. ফেরদৌস জামান, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পরিচালক মোহাম্মদ জামিনুর রহমান, অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. শাহ আলমসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনবল চাহিদা ও ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সুপারিশকৃত জনবলের সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন জনবল বরাদ্দ কমিটির সদস্যসচিব ও কমিশনের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. গোলাম দস্তগীর।

সভায় ২৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রাপ্ত চাহিদা প্রথমবারের মতো টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালার আলোকে পর্যালোচনা করে ৪২২টি জনবল অনুমোদনের সুপারিশ করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগ। এ সুপারিশ যাচাই-বাছাই করে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়ে জনবল বরাদ্দ কমিটি।

জনবল বরাদ্দের বিষয়ে অধ্যাপক ড. দিল আফরোজা বেগম বলেন, প্রথমবারের মতো ইউজিসি জনবল বরাদ্দে নির্ধারিত চারটি ছকের (শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারি ও আউটসোর্সিং) মাধ্যমে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় জনবলসংখ্যা নির্ধারণ করেছে।

‘যেকটি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগে ন্যূনতম যোগ্যতা নির্ধারণ নির্দেশিকা সিনেট বা রিজেন্ট বোর্ডে পাশ করিয়েছে শুধুমাত্র সেগুলোকে জনবল নিয়োগের ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শিক্ষক নিয়োগে ন্যূনতম যোগ্যতা নির্ধারণ নির্দেশিকা অনুমোদন করেছে ৯টি বিশ্ববিদ্যালয়। এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৭৪টি জনবল নিয়োগের ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বাকি ১৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট বা রিজেন্ট বোর্ডে শিক্ষক নিয়োগে ন্যূনতম যোগ্যতা নির্ধারণ নির্দেশিকা অনুমোদিত হলে জনবল নিয়োগের ছাড়পত্র দেওয়া হবে। সভায় এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য মোট ২৪৮টি জনবল অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

ড. দিল আফরোজা বেগম উল্লেখ করেন, এবার ইউজিসি টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালার আলোকে জনবলের চাহিদা নিরূপণ করেছে। তবে ভবিষ্যতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ নীতিমালার আলোকে নিজেরাই জনবলের চাহিদা নিরূপণ করে ইউজিসিতে পাঠাবেন।

সভায় সিদ্ধান্ত হয় যে, কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাড়কৃত জনবলের ৮০ শতাংশ নিয়োগ দেওয়ার পর টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালার ভিত্তিতে আরও জনবলের প্রয়োজন হলে পুনরায় চাহিদাপত্র ইউজিসিতে পাঠাতে পারবে।

এমএইচএম/এসএএইচ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।