সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী

ভালো প্রস্তুতি-সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা, তাই জিপিএ-৫ বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৩ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যা বাড়ার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য প্রায় আড়াই বছর সময় পেয়েছে। ভালো প্রস্তুতির কারণে জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বেড়েছে। পাশাপাশি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে, এটিও ভালো ফলাফলের একটি বড় কারণ।

তিনি বলেন, প্রতিটি শিক্ষাবোর্ডের মধ্যে পাবলিক পরীক্ষায় পাসের হার বাড়ানোর বিষয়ে প্রতিযোগিতা থাকে। সব শিক্ষাবোর্ডই চায় এগিয়ে যেতে। সেক্ষেত্রে কোনো কোনো বোর্ড এগিয়ে যায় আবার কোনো কোনো বোর্ড পিছিয়ে যায়।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

অন্যদিকে ৫০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ ফেল করার কারণ জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, গতবারের চেয়ে শতভাগ ফেল করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও বেড়েছে তার মূল কারণ হচ্ছে আগে কয়েকটি বিষয়ে পরীক্ষা নিয়ে এসএসসির ফলাফল দেওয়া হয়েছিল। সেই কারণে শতভাগ ফেল করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কম ছিল। এবার সব বিষয়ে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। কেন পাস করতে পারেনি সেটা আমরা খতিয়ে দেখবো। আমরা শুধু শাস্তি নয়, সবাইকে নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই। সেই কারণে সমস্যা সমাধানের চেষ্টাই আমাদের মূললক্ষ্য। তবে, এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যদি এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠান থাকে সেটাও আমরা দেখবো।

চলতি বছরের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাবোর্ড মিলে এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ লাখ ৬৯ হাজার ৬০২ পরীক্ষার্থী। গত বছর জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৪০ জন। ২০২০ সালেও জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ জন। ২০২১ সালে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৩৪০ জন।

আরএসএম/এমএএইচ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।