গ্রিন সিগন্যাল পেল পদ্মাবত

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৬ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৫:৪৭ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০১৮
গ্রিন সিগন্যাল পেল পদ্মাবত

ভারত তোলপাড় করে দিল একটি ছবি। শেষ পর্যন্ত নাম বদলে পেয়েছে সেন্সর সার্টিফিকেট। তবুও অনেক অঙ্গরাজ্যে ছবিটিকে মুক্তি দিতে বাধা দেয়া হচ্ছে। দীপিকা পাড়ুকোনের নতুন ছবি ‘পদ্মাবত’র কথা বলা হচ্ছে।

ভারতের রাজস্থান, হিমাচল প্রদেশ ও গুজরাটের রাজ্য সরকার ছবিটির মুক্তির ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। আটকে গেছে আরও বেশ কিছু এলাকায়। তবে এর মধ্যে এ নায়িকার জন্য সুখবর হলো, উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্য নাথ এবং গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিকর তাদের রাজ্যে ছবিটি মুক্তির ব্যাপারে সবুজ সংকেত দিয়েছেন।

তাদের মতে, যেহেতু ছবিটি ভারতের চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড অনুমতি পেয়েছে, সেখানে রাজ্য সরকার কেন আপত্তি তুলবে? আর আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির ব্যাপারে প্রশ্ন উঠলে তারা জবাব দেন, সেই দায়িত্ব রাজ্য সরকারের। অতো ভাবনার কিছু নেই। দর্শক ছবিটি চাইলে হলে গিয়ে দেখতে পারে।

গত শুক্রবার রাজপুত করণি সেনার ৭০ জন সমর্থক মুম্বাইয় সেন্সর বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশনের (সিবিএফসি) অফিসের সামনে ছবিটির মুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় পুলিশ তাদের আটক করেছে। একই সময় করনি সেনার ৩০ জন সমর্থক মুম্বাইর হাজি আলী এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পুলিশ তাদেরও আটক করেছে।

এদিকে গতকাল শনিবার ‘পদ্মাবত’ ছবির নতুন পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। কিন্তু এ পোস্টারে ছবি এবং মুক্তির কোনো তারিখ উল্লেখ করা হয়নি।

তবে আগে থেকেই প্রচার হয়ে আসছে, আগামী ২৫ জানুয়ারি সঞ্জয় লীলা বানসালির ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ‘পদ্মাবত’ নামে। সেই সঙ্গে ভারতের সেন্সর বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশনের (সিবিএফসি) নির্দেশনা অনুযায়ী ছবিতে পাঁচটি পরিবর্তন করেছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালি।

গত ২৮ ডিসেম্বর সিবিএফসির প্রধান প্রসূন যোশি সংবাদমাধ্যমকে জানান, ছবিতে পাঁচটি পরিবর্তন করতে হবে। ১. ছবিতে অবশ্যই লিখতে হবে, এ ছবির সঙ্গে ঐতিহাসিক ঘটনার কোনো মিল নেই। ২. ছবির নাম পাল্টে ‘পদ্মাবত’ করতে হবে। কারণ, ছবির চিত্রনাট্যে পরিচালকের শৈল্পিক নিদর্শন রয়েছে। আর ছবিটি তৈরি হয়েছে ‘পদ্মাবত’ নামের একটি কাল্পনিক কবিতাকে অবলম্বন করে। ৩. ‘ঘুমার’ গানের কিছু পরিবর্তন করতে হবে। ৪. ঐতিহাসিক স্থান ও কাল নিয়ে কিছু তথ্য দেখাতে হবে। ৫. ছবিতে অবশ্যই লিখতে হবে, ভারত সতীদাহ প্রথাকে সমর্থন করে না। তাকে কোনোভাবে প্রচার বা গৌরবান্বিত করছে না।

সিবিএফসির বিশেষ প্যানেলের বৈঠক শেষে প্রসূন যোশি জানিয়ে দেন, এ শর্তগুলো মানলে তবেই ছবিটি প্রদর্শনের অনুমতি দেওয়া হবে। সেই পাঁচ শর্ত পূরণ করেই গেল ৩০ ডিসেম্বর মুক্তির অনুমতি পায় ‘পদ্মাবতী’।

এলএ/আইআই

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com