চোর ধরতে মাঠে নেমেছেন নায়ক-নায়িকারা

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:১২ পিএম, ১৪ জুলাই ২০১৯

নাটক সিনেমায় গল্প চুরির ঘটনা নতুন নয়। যতই দিন যাচ্ছে ততই বেড়ে চলেছে গল্প চুরির ঘটনা। কার গল্প নিয়ে কে সিনেমা বানাচ্ছে তার ঠিক নেই! অনেক জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিকদের অনুমতি ছাড়াই তাদের গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করে ফেলছেন কোনো কোনো নির্মাতা। গল্প চুরির ঘটনায় টালিপাড়ায় চলছে হ য ব র ল অবস্থা। অবাক করার মতো বিষয় হলো প্রথম সারির নির্মাতা নন্দিতা রায় আর শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায় বা সৃজিত মুখোপাধ্যায়, সকলের নামেই অন্যের গল্প বা চিত্রনাট্য চুরির অভিযোগ উঠছে।

‘বেলাশেষে’, ‘প্রাক্তন’ বা ‘পোস্ত’ সিনেমার পরিচালকদ্বয় নন্দিতা রায় আর শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় প্রয়াত সাহিত্যিক সুচিত্রা ভট্টাচার্যর গল্পের অনুকরণে ছবি বানিয়ে লেখকের নাম দিচ্ছেন না বলেও অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে

নাট্যকার কাজল চক্রবর্তীর ‘বেলাশেষের কোলাহল’ নাটকের অনুকরণে নন্দিতা রায় আর শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় তৈরি করেছিলেন ‘বেলাশেষে’।

নন্দিতা রায়-শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘প্রাক্তন’ ছবিটি সুচিত্রা ভট্টাচার্যর ‘উজান’ অবলম্বনে তৈরি আর ‘পোস্ত’ ছবিটি ‘মোহনবিল’ নামে এক গল্পের আদলে তৈরি এমন অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু এসব ছবিতে গল্পকার হিসেবে সুচিত্রা ভট্টাচার্যর নাম নেই।

গল্প চুরির প্রতিবাদে মাঠে নেমেছেন টালিউডের নায়ক নায়িকারা। তাদের হাতে কালো ব্যানার। ব্যানারে লেখা, ‘বাংলার অপমান, আমার, আপনার, সবার অপমান।’ দেখা যাচ্ছে ব্যানারের পিছে দাঁড়িয়েছেন দেব, রুদ্রনীল, সোহম চক্রবর্তীসহ আরও অনেকেই।

টালিউডে মাঝে মধ্যেই এমন গল্প চুরির অভিযোগ ওঠে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। তাই বিষয়টি কিছুদিন চর্চার মধ্যে থাকার পর হারিয়ে যায়। কিন্তু এবার সুচিত্রা ভট্টাচার্য-র পরিবার থেকে ঠিক করা হয়েছে আইনি পথে এগোতে হলে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি যাতে হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখা হবে।

কিছু লেখকের পরিবার ইদানীং পরিচালকদের গল্পের স্বত্ব দেওয়ার ব্যাপারে অত্যন্ত সতর্ক হয়ে গিয়েছেন। যেমন কিছুদিন আগেই লীলা মজুমদারের রচনা 'টং লিং' নিয়ে রাজ চক্রবর্তী ছবি করার জন্য স্বত্ব চেয়েছিলেন। কিন্তু লেখিকার পরিবারের তরফে তাকে সে স্বত্ব দেওয়া হয়নি। অভিনেতা দেব বক্সিং নিয়ে একটি সিনেমা করেন। নাম 'চ্যাম্প'। তার মধ্যে মতি নন্দীর ‘শিবা’ এবং ‘শিবার ফিরে আসা’ গল্পের ছায়া। কেন এ নিয়ে অভিযোগ করেননি, প্রশ্ন করলে মতিবাবুর মেয়ে অমৃতরূপা হেসে বললেন, ‘সিনেমাটা চললে ভাবা যেত। সিনেমাটা তো চলেইনি।’

শোনা যাচ্ছে, এবার গল্প চুরির প্রতিবাদে জানিয়ে জোট বাঁধতে পারেন কলকাতার লেখকরা।

এমএবি/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :