মাদক মামলায় এনবিসি দফতরে দীপিকা, চলছে জেরা

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৪৭ এএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

মাদক মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভারতের নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) দফতরে পৌঁছেছেন অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। সুশান্ত সিং রাজপুতের হত্যার তদন্তে বলিউডের তারকাদের মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি উঠে আসে। এতে দীপিকার নামও উঠে এসেছে। তার জন্য অভিনেত্রীকে সমন পাঠিয়েছিল এনসিবি।

দীপিকাকে মুম্বাইয়ের কোলাবা অ্যাপালো বন্দরের এভলিন গেস্ট হাউসে জেরা করা হচ্ছে। এ দিন সকালেই সেখানে পৌঁছেন তিনি। দীপিকা উৎকণ্ঠায় ভোগেন বলে জেরার সময় স্বামী রণবীর সিং তার সঙ্গে থাকতে চেয়েছেন বলে গতকাল শোনা গিয়েছিল। এমন কোনো অনুরোধ এনবিসির কাছে এসে পৌঁছায়নি বলে জানায় সংস্থাটি। এ দিন একাই গেস্ট হাউজে পৌঁছান দীপিকা। তার সঙ্গে দেখা যায়নি রণবীরকে।

ওই একই মামলায় এ দিন এনসিবির দফতরে হাজিরা দেয়ার কথা অন্য দুই অভিনেত্রী সারা আলি খান এবং শ্রদ্ধা কাপুরেরও। তাদের বাল্যার্ড এস্টেটে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো নিশ্চিত করেছে।

এদিকে শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) প্রায় সাত ঘণ্টা জেরা করা হয় দীপিকার ম্যানেজার করিশ্মা প্রকাশকেও। তাকে শনিবার ফের ডাকা হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, দীপিকা আর করিশ্মাকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করছে এনসিবি।

উল্লেখ্য, বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে নায়ক-নায়িকাদের মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি উঠে আসে। এজন্য গ্রেফতার হয়েছেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, অভিনেত্রী রকুলপ্রীত সিংকে। তিনি স্বীকার করেন, তার বাড়ি থেকে বাজেয়াপ্ত মাদকের মালিক রিয়া চক্রবর্তী। রিয়ার সঙ্গে তার নিয়মিত মাদক সংক্রান্ত কথা হতো। রিয়া মাদক কিনে রকুলের বাড়িতে রাখতেন। রকুল নিজে কখনও মাদকসেবন করেননি বলে জানান।

এদিকে জানা গেছে, মাদক সংক্রান্ত হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপের অ্যাডমিন ছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন। খোদ অভিনেত্রীর ম্যানেজার কারিশমা প্রকাশ এনসিবি কাছে এ তথ্য স্বীকার করেছেন। মাদক-সংক্রান্ত হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের যে তথ্য প্রকাশ পেয়েছে তাতে কারিশমা প্রকাশ, জয়া সাহা ও দীপিকার নাম রয়েছে। ওই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মাদক-সংক্রান্ত চ্যাটগুলো ছিল ২০১৭ সালের।

এফআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]