মাদক মামলা : এনসিবির তালিকায় কি শাহরুখ-রণবীর?

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২৯ এএম, ০১ অক্টোবর ২০২০

মাদক মামলায় ইতোমধ্যেই জিজ্ঞাসা করা হয়েছে অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন, শ্রদ্ধা কাপুর ও সারা আলি খানকে। তবে এদের পর কাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ভারতের নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। এবার কি সামনে আসতে চলেছে আরও বড় সুপারস্টারের নাম?

ভারতের একটি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে- এনসিবি সূত্রে তেমনই ইঙ্গিত মিলেছে। সূত্রের খবর, তাদের মধ্যে একজনের নাম শুরু ইংরেজি অক্ষর ‘এস’ দিয়ে। বয়স ৫৪ বছর। ৯০টির বেশি ছবিতে অভিনয় করেছেন। একজনের নাম শুরু ‘আর’ দিয়ে। তার বয়স ৩৮ বছর। ঝুলিতে বেশ কয়েকটি হিট ছবি রয়েছে। তৃতীয় জনের নাম ‘এ’ দিয়ে শুরু। যিনি বলিউডের সুপুরুষ নায়কদের একজন। তবে তিনি নিজে ড্রাগ নিতেন না। তবে ড্রাগ কারবারিদের দিয়ে এস এবং আর-এর কাছে ড্রাগ পাঠাতেন।

কিন্তু কে এই ‘এস’, ‘আর’ এবং ‘এ’? এ নিয়ে যখন তুঙ্গে জল্পনা, ঠিক তখনই দৈনিক ভাস্কর নামে একটি হিন্দি দৈনিকের দাবি, এই ‘এস’ হলেন শাহরুখ খান! ‘আর’ হলেন রণবীর কাপুর এবং ‘এ’ হলেন অর্জুন রামপাল!

শুধু তাই নয়, পত্রিকাটি আরও দাবি করছে, নামের আদ্যাক্ষর ‘ডি’, বলিউডের এমন আরও এক স্টারও গোয়েন্দাদের স্ক্যানারে রয়েছেন। এই ‘ডি’-কে ডিনো মোরিয়া বলে দাবি করেছে দৈনিক ভাস্কর।

যদিও দৈনিক ভাস্করের এই খবরের কোনও ভিত্তি নেই বলে এনসিবি সূত্রে দাবি করা হয়েছে।

এর আগে অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহার মোবাইলফোন পরীক্ষা করতে গিয়ে, ‘ডি’ এবং ‘কে’ নামে দু’জনের একটি হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের সন্ধান পায় এনসিবি। তার তদন্ত করতে গিয়েই উঠে আসে দীপিকা পাড়ুকোন এবং তার প্রাক্তন ম্যানেজার করিশ্মা প্রকাশের নাম।

তাদের দু’জনকে মুখোমুখি বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এনসিবি। এবার ‘এস’, ‘আর’ এবং ‘এ’-র সূত্র ধরে তদন্ত চালিয়ে কাদের নাম উঠে আসবে? তাদেরও কি সমন পাঠাবে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো? সেটাই দেখার অপেক্ষায় বলিউড।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু সংক্রান্ত মূল মামলার তদন্ত করছে সিবিআই। তারা তদন্তভার নেয়ার পর প্রায় দু’মাস পার হতে চললেও তদন্তে কী অগ্রগতি হয়েছে সে বিষয়ে এখনও কিছু জানায়নি সিবিআই।

এর মধ্যে বুধবার বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের সঙ্গে দেখা করেন সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করার জন্য ধন্যবাদ জানান সুশান্তের বাবা কে কে সিংহ।

পত্রিকাটি আরও দাবি, তিনি মুখ্যমন্ত্রীকে বলেন, শেষবার বিহারে এসে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলেন সুশান্ত। কিন্তু, তা হয়ে ওঠেনি।

সুশান্তের সঙ্গে দেখা না হওয়ার জন্য আক্ষেপ প্রকাশ করে তাকে তরুণ প্রজন্মের আইকন বলেন নীতীশ কুমারও।

বিরোধীরা অবশ্য কটাক্ষের সুরে বলছে, এসব স্রেফ সুশান্তের জন্য সাধারণ মানুষের আবেগকে কাজে লাগিয়ে বিহার ভোটের বৈতরণী পেরনোর চেষ্টা।

এফআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]