এক রাতের মধ্যেই পাঞ্জাবের করোনা রোগীকে অক্সিজেন পাঠালেন স্বস্তিকা

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৩০ পিএম, ১৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০৬:৩৪ পিএম, ১৬ মে ২০২১

প্রতিটি রাত তার কাছে বিশেষ। প্রতি রাতেই তিনি নিজের মতো করে ভালো থাকার চেষ্টা করেন। কিন্তু শনিবারের রাত স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ের জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। কথাগুলো নিজেই জানিয়েছেন এ অভিনেত্রী।

কারণ, এক রাতের মধ্যে পাঠানকোটে কোভিড রোগীকে অক্সিজেন সিলিন্ডার পাঠাতে পেরেছেন স্বস্তিকা। ইনস্টাগ্রামে সেই খবর জানিয়েছেন তিনি।

তার ইনস্টা স্টোরি পড়ে বোঝা গেল, করোনা রোগীকে অক্সিজেন পাঠাতে পেরে বেশ আনন্দিত তিনি।

লম্বা পোস্টের শুরুতেই স্বস্তিকা লেখেন, ‘মাঝ রাতে টুইটারে এক রোগী অক্সিজেন সিলিন্ডার চেয়ে যোগাযোগ করেন আমার সঙ্গে। তিনি পাঠানকোটে থাকেন। এ কথা জানাতেই মাথায় যেন আকাশ ভেঙে পড়ল।'

অভিনেত্রীর ভাষায়, আচমকা ডাক পেয়ে তিনি এতটাই হতভম্ব যে প্রথমে বুঝে উঠতে পারছিলেন না, পাঠানকোট কোথায় অবস্থিত! একবার ভাবছিলেন জায়গাটি আফগানিস্তানে। তার পরই মনে করেছেন, পাঠানকোট কাশ্মীরে অবস্থিত। মাথা ঠান্ডা করে ভাবতেই স্বস্তিকার মনে পড়ে পাঠানকোট পাঞ্জাবে।

অবস্থান নিয়ে সমস্যা মেটার পরই নতুন দুশ্চিন্তা স্বস্তিকার, তার সম্বল একটি মুঠোফোন। তার সাহায্যে কলকাতা থেকে এত দূরে কীভাবে রোগীর প্রয়োজন মেটাবেন? এর পরই মুঠোফোনে তিনি যোগাযোগ করতে আরম্ভ করেন চেনা জানা কোভিড যোদ্ধাদের সঙ্গে। বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গেও।

অভিনেত্রীর দাবি, ‘যোগাযোগের সঙ্গে সঙ্গে সবাই সাড়া দিতে থাকেন। মুঠোফোনে সবাই একজোট হতেই রাতারাতি ব্যবস্থা হয়ে যায় অক্সিজেন সিলিন্ডারের।'

রোগীর প্রয়োজন মিটতেই এক রাশ তৃপ্তি জড়িয়ে ধরেছে স্বস্তিকাকে।

এলএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]