সালমান খানের ‘রাধে’ দেখে হতাশ তার বাবাও

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫৯ পিএম, ২৯ মে ২০২১

‘এ সিনেমাটি আহামরি কিছু নয়। ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো গল্প লেখকের অভাব চলছে। আরও ভালো ছবি বানানোর দরকার বলিউডে’- নিজের পুত্র সালমান খানের ‘রাধে’ সিনেমা দেখে এভাবেই নিজের মতামত দিয়েছেন সেলিম খান।

তিনি বলিউডের নামজাদা চিত্রনাট্যকার ও প্রযোজক। মশলাদার অনেক সুপারহিট সিনেমার সঙ্গে যেমন তার নাম জড়িয়ে আছে তেমনি কালজয়ী সিনেমারও সঙ্গী তিনি। ছেলে সালমানের সিনেমাগুলো উপভোগ করেন মন দিয়ে। ছেলে বলে নয়, অভিনেতা ও মানবিক মানুষ সালমানের প্রতি তার আগ্রহটা একজন সাধারণ মানুষ হিসেবেও অনেক বেশি।

কিন্তু সম্প্রতি ‘রাধে : ইয়োর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ সিনেমাটি দেখে হতাশ হয়েছেন সেলিম খান। পুত্রের সিনেমার সমালোচনা করলেন প্রকাশ্যেই। এজন্য সালমানের আগের কিছু ছবির প্রসঙ্গে টেনে আনলেন তিনি তুলনা হিসেবে। নিজেদের সময়ের বলিউডের প্রসঙ্গও উল্লেখ করেছেন তিনি।

এক সংবাদমাধ্যমকে সেলিম জানান, ‘সালমান খানের সাম্প্রতিকতম ছবি ‘রাধে : ইয়োর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ ছবিটি উচ্চ মানের নয়। ‘বজরঙ্গি ভাইজান’, ‘দাবাং’- এর সঙ্গে তুলনা টেনে বললেন, ‘তার আগের সিনেমাগুলো একদম ভিন্ন স্বাদের ছিল। কিন্তু ‘রাধে’ ভাল ছবি নয়। আরও ভালো সিনেমা বানাতে হবে।’

তবে একইসঙ্গে এই ছবি বানানোর প্রয়োজনীয়তা আছে বলেও জানালেন বর্ষীয়ান লেখক। বাণিজ্যিক ছবিগুলো দর্শক দেখেন বেশি। এতে করে সিনেমার সঙ্গে জড়িতরা লাভবান হন। যিনি সিনেমাটি কেনেন সেও লাভের মুখ দেখতে পারেন। সে জায়গা থেকে ‘রাধে’ সফল। দর্শক ছবিটি দেখছেন।

কিন্তু বাণিজ্যিক ছবি লেখার শিল্পে খামতি রয়েছে বলে মনে করেন সালমানের বাবা। নিজেদের সময়ে বলিউডের ধরন কেমন ছিল, সে প্রসঙ্গ টেনে জানান, একসময় জাভেদ আখতার এবং সেলিম খান মুম্বাই সিনেমার ইন্ডাস্ট্রি মাতিয়েছেন। সেলিম-জাভেদ জুটি ‘শোলে’, ‘জিঞ্জির’, ‘ডন’, ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’-র মতো বিখ্যাত ছবি লিখেছেন।

এখনকার চিত্রনাট্যকারদের লেখায় সেই ধার দেখা যাচ্ছে না। লেখার মানের অবনতি হয়েছে। আর তারই ফলাফল ‘রাধে’।

এলএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]