পাকিস্তানি ইমরান খানের ভক্ত হওয়ায় শাহরুখকে বয়কটের ডাক

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৩৬ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

টুইটারে ১ নম্বরে ট্রেন্ডিং ‘#BoycottShahRukhKhan’। ১৬ সেপ্টেম্বর সকাল থেকে টুইটারে বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানকে বয়কট করতে চলছে এই হ্যাশট্যাগের ব্যবহার। কারণ হিসেবে জানা গেছে, পাকিস্তানের বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেট অধিনায়ক ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ইমরান খানের সঙ্গে একটি ছবি।

ইমরান খানের সঙ্গে সেই ছবিটি ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ইমরানের সঙ্গে ঘনিষ্ট সম্পর্ক রয়েছে এই দাবিতেই প্রতিবাদ জানিয়ে আবেদন করা হচ্ছে শাহরুখ এবং তার আগামী ছবি ‘পাঠান’ বয়কট করার জন্য।

শাহরুখ খানের বিশ্বজোড়া অনুরাগী থাকলেও তিনি নিজে ইমরান খানের ভক্ত একথা স্বীকার করেন তিনি নিজেই। তিনি সবসময়েই চেয়েছেন ইমরান খানের সঙ্গে দেখা করতে। যদিও ইমরানের সঙ্গে তার প্রথম সাক্ষাৎকার খুব সহজ ছিলো না বলেই তিনি জানান।

ইমরানের একটি অটোগ্রাফ চাওয়ায় তিনি রেগে যান কারণ সেইদিন খেলায় খুব একটা রান করতে পারেননি তিনি।

এদিকে ইমরানকে পছন্দ করেন না ভারতীয়রা। সম্প্রতি তালেবান আফগানিস্তানের শাসনক্ষমতা দখল করার পর সেই অপছন্দের মাত্রা তীব্র হয়েছে। ইমরান খানের বিরুদ্ধে তালেবানকে সাহায্য করার অভিযোগ ওঠেছে।

পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা পানসির উপত্যকায় তালেবানের লড়াইয়ে সাহায্য করেছে এবং ISI-এর ডিরেক্টরের উপস্থিতিতেই তালিবানের সরকারে কারা থাকবেন সেই সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। পাকিস্তানের এই অবস্থান, তাদের ভারত বিরোধী অবস্থানকে আরো শক্তিশালী করবে বলেই সকলের অনুমান।

ভারতীয়রা মনে করেন ইমরানের জন্যই তালেবানরা আফগানিস্তান দখলে নিয়েছে। নানা রকম হুমকির মুখে পড়েছে ভারত। সেই কারণেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরানের সঙ্গে শাহরুখের ভালোবাসা মেনে নিতে পারছেন না তারা।

তাই ইমরান খানের সঙ্গে শাহরুখ খানের একটি পুরোনো ছবি টুইটারে পোস্ট করছেন নেটিজেনরা। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলেছে। শাহরুখকে বয়কটের আহ্বান করছেন অনেকে।

২০১৮ সালে জিরো’ ছবিতে শেষবারের মতো বড় পর্দায় দেখা যায় শাহরুখ খানকে। বক্স অফিসে খুব একটা সাফল্যের মুখ দেখেনি সে ছবি। আবার ২০২২ সালে যশ রাজের ব্যানারে আসতে চলেছে তার পরবর্তী সিনেমা ‘পাঠান’। এবার সেই সিনেমা বয়কটের ডাক দিলো নেটিজেনরা। এ বিষয়ে অবশ্য শাহরুখ খান কোনো বক্তব্য দেননি এখনো।

এলএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]