নিজেই গ্রেফতার আতঙ্কে ভুগছেন আরিয়ানকে আটক করা সেই অফিসার

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৪৮ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ানকে আটক করা এনসিবির অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে গ্রেফতার হতে পারেন। তিনি নিজেই এই কথা জানিয়েছেন মুম্বাই পুলিশের কাছে। সেইসঙ্গে অনুরোধও করেছেন, তাকে যেন ফাঁসানো না হয়। মূলত ঘুষ গ্রহণের দায়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠার পর থেকেই তিনি গ্রেফতার আতঙ্কে ভুগছেন।

সমীর ওয়াংখেড়েকেকে বলা হয় মাদক নিয়ন্ত্রণের ‘নায়ক’। তবে সমালোচনার পাল্লাটাই বেশি ভারী তার। বিশেষ করে বলিউডের প্রতি তার যেন ব্যক্তিগত আক্রোশ রয়েছে। বারবার তিনি গেল কয়েক বছরে সেটার প্রমাণ দিয়েছেন।

মাদক মামলার নামে অনেক তারকা ও তারকার সন্তান-স্বজনদের হয়রানি করেছেন। তিনি ২০১১ সালে আমদানি শুল্ক না দেওয়ায় মুম্বাই বিমানবন্দরে আটকে দেন বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ট্রফি। শেষ পর্যন্ত শুল্ক মিটিয়ে ট্রফি ছাড়াতে হয়।

২০১৩ সালে মুম্বাই বিমানবন্দরে ওয়াংখেড়ের হাতে বিদেশি মুদ্রা-সহ ধরা পড়েন গায়ক মিকা সিং। এছাড়া অনুরাগ কাশ্যপ, বিবেক ওবেরয়, রামগোপাল বর্মাদের বিরুদ্ধে হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তির মামলাতেও তল্লাশি চালিয়েছেন সমীর। অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপূতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর তদন্ত করেন তিনি। রীতিমতো ঝড় তুলে দেন এই ইস্যুতে পুরো ভারতে।

সর্বশেষ তিনি আলোচনায় রয়েছেন শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খানকে আটক করে। তার হাতে আটক হয়েই আরিয়ান এখন মুম্বাইয়ের কারাগারে।

এবারেও সমালোচনা পিছু ছাড়লো না তার। আরিয়ানের বিরুদ্ধে সাক্ষী দেয়া পলাতক ব্যক্তির ড্রাইভার দাবি করেছেন, সমীর ১৮ কোটি টাকা লেনদেন করেছেন আরিয়ানকে ফাঁসাতে। ব্যাস, সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে বলিউডে।

শুধু তাই নয়, নিজের নিরাপত্তা নিয়েও শংকিত সমীর। ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে তার বিরুদ্ধে। তাই সমীর ধারণা করছেন তাকে হয়তো ফাঁসানো হবে এবং গ্রেফতার করা হবে।

এনসিবি কর্তা সমীর ওয়াংখেড়ে মুম্বাইয়ের পুলিশ কমিশনারকে চিঠি লিখে অনুরোধ করেছেন তার বিষয়ে যেন অপ্রাসঙ্গিক কিছু করা না হয়। তাকে যেন না ফাঁসানো হয় সেজন্যও অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি শাহরুখপুত্র মাদক মামলায় আরিয়ান খানের গ্রেপ্তারির পর রোববার প্রভাকর শৈল নামের এক ব্যক্তির হলফনামাকে কেন্দ্র করে নতুন বিতর্কের সৃষ্টি হয়। হলফনামায় নাকি প্রভাকর জানান, তিনি কে পি গোসাভি যার আরিয়ানের সঙ্গে তোলা সেলফি ভাইরাল হয় ও জনৈক স্যাম ডি’স্যুজার কথোপকথন শুনেছিলেন। যেখানে আরিয়ানের মামলার নিষ্পত্তি করার জন্য নাকি সমীর ওয়াংখেড়ের পক্ষ থেকে ২৫ কোটি টাকা চাওয়া হয়েছিল। দরাদরির পর ১৮ কোটি টাকায় দফারফা হয়। যার মধ্যে ৮ কোটি টাকা নাকি সমীর ওয়াংখেড়ের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কথা হয়। প্রভাকরের দাবি, সেই টাকা স্যাম ডি’স্যুজার হাতেও দেওয়া হয়েছিল।

এসব তথ্য বের হয়ে আসতেই বলিউডে অনেক প্রতিবাদ হচ্ছে। সাধারণ মানুষদের পাশাপাশি বলিউডের অনেকে আছেন সেই তালিকায়। পরিচালক হনসল মেহতা টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করে লেখেন, ‘সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত তার পদত্যাগ করা উচিত। নিজেদের নির্দোষ প্রমাণ করার দায় কি শুধু হাজতে থাকা মানুষদেরই?’

হনসল মেহতার পাশাপাশি নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোকে একহাত নেন শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। একটি ভিডিও শেয়ার করে তিনি অভিযোগ করেন, আরিয়ান মামলায় সাক্ষীকে দিয়ে সাদা কাগজে সই করানো হয়েছে। নিজের টুইটে প্রভাকরের ঘটনার উল্লেখও করেন তিনি।

এমআই/এলএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]