‘মসুল’ সিনেমার শিল্পীদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে আইএস

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:০৭ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২১

নেটফ্লিক্স থেকে গতবছর মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি ছিলো ‘মসুল’। নেটফ্লিক্সে সর্বাধিক দর্শকের দেখা সিনেমাগুলোর তালিকায় শীর্ষস্থানে রয়েছে হলিউডের এই সিনেমাটি। তবে সে জনপ্রিয়তাই যেন বিপদ ডেকে এনেছে ‘মসুল’র জন্য।

জঙ্গি সংগঠন আইএস অধিকৃত ইরাকের মসুল শহরে মার্কিন সোয়াট টিমের দুর্ধর্ষ গেরিলা অভিযানের কাহিনি নিয়ে তৈরি এ সিনেমার কলাকুশলীরা এখন রয়েছেন মৃত্যু হুমকিতে। এর পরিচালক, প্রযোজকদেরও ভিডিও বার্তায় আইএসের পক্ষ থেকে দেয়া হচ্ছে নানা হুমকি।

সিনেমাটি প্রযোজনা করেছেন ‘অ্যাভেঞ্জারস : এন্ডগেম’-এর পরিচালক অ্যান্টনি রুসো এবং জো রুসো ভাতৃদ্বয়। অপরদিকে এটি পরিচালনা করেছেন কার্নাহান। ওয়ার্ল্ড ওয়ার জেড এবং টুয়েন্টি ওয়ান ব্রিজ সিনেমার চিত্রনাট্যকার তিনি।

গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে সিনেমার অভিনেতা সুহেল ডাববাচ জানান, ‘সত্যি বলতে সিনেমাটি মুক্তির প্রথম দিন থেকেই আমরা নানা রকম হুমকি পাচ্ছি। অনেক ভিডিও বার্তায় আমাদের হত্যার কথাও বলা হচ্ছে। আইএসের সদ্যসরা নির্মম ঘটনার ইঙ্গিত দিচ্ছেন।

আমরা অনেকেই নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। অবশ্য আমরাই এই পরিস্থিতি তৈরি করেছি। কারণ সিনেমাতে আমরা মানুষের কল্যাণে সত্য গল্প তুলে ধরেছি।’

প্রযোজক জো রুসো জানান, ‘সিনেমাটির পরিচালকসহ সকলেই মৃত্যুর হুমকি দেয়া হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এমন নিরাপত্তাহীনতায় থাকা আমার মনে হয় না পৃথিবীর কেউ স্বাচ্ছন্দে নিতে পারবে। আমিও তার ব্যতিক্রম নই।

আমাদের সিনেমার শুটিংসহ নানা কাজেই মধ্যপ্রাচ্যে যাওয়ার দরকার পড়ে। কিন্তু নিরাপত্তাজনিত কারণে সকল কিছুই আমরা দ্বিতীয়বারের মতো চিন্তা করতে বাধ্য হচ্ছি। আমরা আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করতে আবেদন জানাচ্ছি।’

গেল বছরের নভেম্বর থেকে সিনেমাটি নেটফ্লিক্সে দেখা যাচ্ছে। অ্যাকশনধর্মী এই সিনেমাটি মূলত ২০১৪ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আইএসএস’র সঙ্গে ইরাকি সোয়াত দলের যুদ্ধ নিয়ে তৈরি। সিনেমাতে ইরাকের মসুল শহর, সিরিয়ার রাকার গল্প ফুটে উঠেছে।

সূত্র : ডেডলাইন

এলএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]