ঝড় তুলেছে গডজিলা-কংয়ের যুদ্ধ, আয় ২৮৫ মিলিয়ন ডলার

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৯ পিএম, ০৭ এপ্রিল ২০২১

করোনার এই অসময়ে অন্য সবার চেয়ে একটু বেশিই বাজে সময় পার করছে সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি। প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ হয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে নতুন সিনেমার শুটিং, সব জায়গাতেই বড় বিপত্তির তৈরি করেছে করোনা। তাই বিনোদনের জন্য মানুষের অন্যতম অবলম্বন হিসেবে কাজ করেছে স্ট্রিমিং সাইটগুলো।

কিন্তু করোনার এই বাজে সময়েও আশার আলো দেখিয়েছে অ্যাডাম উইংগার্ড পরিচালিত সায়েন্সফিকশন ও অ্যাকশন চলচ্চিত্র 'গডজিলা বনাম কং'। ছবিতে জায়ান্ট এই প্রাণির শ্রেষ্ঠত্বের যুদ্ধ দেখানো হয়েছে।

কিং কং ফ্র্যাঞ্চাইজির ১২তম সিনেমাটি মুক্তির প্রথম পাঁচ দিনেই বক্স অফিসে ঝড় তুলেছে। আয় করে নিয়েছে ৪৮.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

যা করোনা পরবর্তী সময়ে মুক্তি প্রাপ্ত ব্যবসায়িক সফল সিনেমার তালিকায় সবার শীর্ষে রয়েছে৷ এর আগে এই তালিকায় শীর্ষে ছিল 'ওয়ান্ডার ওম্যান ১৯৮৪'৷

গডজিলার হিসেবটা শুধু মার্কিনের৷ পুরো দুনিয়াজুড়ে এখন পর্যন্ত সিনেমাটির আয় ২৮৫.৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যার মধ্যে সব থেকে বেশি আয় হয়েছে চীন থেকে, ৪৪.২ মিলিয়ন ডলার।

সিনেমাটি এইচবিও ম্যাক্স সাবস্ক্রাইবদের জন্যও কোনো অতিরিক্ত ফি ছাড়াই দেখার সুযোগ থাকা সত্ত্বেও এর বক্স অফিস আলোড়ন দারুণভাবে প্রেরণা যোগাচ্ছে প্রেক্ষাগৃহের মালিকদের।

ফ্র্যাঞ্চাইজ এন্টারটেইনমেন্ট রিসার্চ এর পরামর্শদাতা ডেভিড এ গ্রস সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জানান, 'করোনার এই সময়েও সিনেমাটি প্রথম দিন থেকে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ শতাংশেরও বেশি প্রেক্ষাগৃহ খুলে দেওয়ার পেছনেও বেশ বড় ভূমিকা রেখেছে এই সিনেমা। যদিও নিউ ইয়র্ক সিটি এবং লস অ্যাঞ্জেলেসসহ অনেকগুলো জায়গাতেই স্বাস্থ্যবিধির নানা জটিলতায় অনেক প্রেক্ষাগৃহ এখনো খোলা সম্ভব হয়নি৷ তাহলে লাভের পরিমাণটা আরও বড় হতো।'

ছবিটি মুক্তি পেয়েছে বাংলাদেশেও৷ আন্তর্জাতিক মুক্তির প্রথমদিন থেকেই সিনেমাটি প্রদর্শিত হয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্সে। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশে চলছে লকডাউন৷ তাই আপাতত বন্ধ রয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্স।

এলএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]