Jago News logo
Banglalink
ঢাকা, শনিবার, ২৪ জুন ২০১৭ | ১০ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ফাগুনের সন্ধ্যা মাতালেন বন্যারা


জ্যেষ্ঠ প্রেতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:০৮ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৭, সোমবার
ফাগুনের সন্ধ্যা মাতালেন বন্যারা

ফাগুন হাওয়ায় হাওয়ায় করেছি যে দান/তোমার  হাওয়ায় হাওয়ায় করেছি যে দান/আমার আপনহারা প্রাণ   আমার বাঁধন-ছেড়া প্রাণ। ফাগুনের সন্ধ্যা বেলায় রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা যখন গানটি গাইছিলেন, তখন যেন গোটা অডিটোরিয়াম উদাস বনে যায়। ফাগুনের হাওয়ায় মন মাতিয়ে শ্রোতারাও গাইছিলেন রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী বন্যার দোহারী হয়ে।

তার আগে বাউলিয়ানায় মঞ্চ মাতিয়েছেন মনিরা ইসলাম পাপ্পু। লালন সাঁইজি, শাহ আবদুল করিমের গান আর হৃদয় হরণকারী সুরে উষ্ণতায় ভরে তোলেন সোমবারের এ সাঁজবেলা। শেষের বেলায় ‘অনামিকা সাগরকন্যা’ শীর্ষক নৃত্যনাট্য পরিবেশন করে পূজা সেনগুপ্ত ও তাঁর দল তুরঙ্গমী রেপার্টরী ড্যান্স থিয়েটার দর্শকদের মন কাড়ে।

banna

সোমবার বিকেলে ভিন্ন সাজে সেজেছিল রাজধানীর আইডিইবি ভবনের মুক্তিযোদ্ধা মেমোরিয়াল হল। হল ভর্তি দর্শকের অধিকাংশই ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর) স্কলার। রঙ্গিন আলো আর প্রাণবন্ত পরিবেশনা ছিল গোটা অনুষ্ঠান জুড়েই। ইন্ডিয়ান টেকনিক্যাল এন্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন (আইটেক) প্রোগ্রাম এবং ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর) দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়।

banna

অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতি ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এ.এইচ.এম. মুস্তফা কামাল। বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রী হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা এবং কমিশনের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি পরিকল্পনা মন্ত্রী এ.এইচ.এম. মুস্তফা কামাল বলেন, ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর) বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে শিল্প-সংস্কৃতির বিকাশে অসামান্য অবদান রাখছে।

তিনি বলেন, সংস্কৃতির বন্ধনে দুটি দেশ যেভাবে সম্পর্কের জালে আটকাতে পারে, তা অন্য কোনো মাধ্যমে সম্ভব নয়। তিনি তরুণ মেধাবীদের মেধা বিকাশে ভারত সরকারের আরও সাহায্য প্রত্যাশা করেন।অনুষ্ঠানে প্রায় ৫০০ জন প্রাক্তন আইটেক ও আইসিসিআর শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

এএসএস/ওআর/আরআইপি

আপনার মন্তব্য লিখুন...

 
Jagojobs