নায়করাজকে ছাড়া প্রথম চলচ্চিত্র দিবস

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:২৩ এএম, ০৩ এপ্রিল ২০১৮

১৯৫৭ সালের ৩ এপ্রিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন প্রাদেশিক সরকারের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী হিসেবে প্রাদেশিক পরিষদে চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন বিল উত্থাপন করেন। আর এই বিলের মাধ্যমে নির্মিত হয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন। প্রতিবছর দিনটিকে স্মরণ করে পালন করা হয় জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস।

চলচ্চিত্রকর্মীদের দাবির মুখে ২০১২ সালে দিবসটি ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই থেকে প্রতিবছর পালিত হয়ে আসছে দিবসটি। চলচ্চিত্রের অভিভাবক হিসেবে দিনটি উদযাপনে সভাপতিত্ব করতেন ঢাকাই ছবির শিরোমনি নায়করাজ রাজ্জাক।

নিয়তির নির্মম পরিহাস সপ্তম জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস পালিত হতে যাচ্ছে নায়করাজকে ছাড়াই। দীর্ঘদিন অসুখে ভুগে গেল বছরের ২১ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন তিনি। তার অভাবের শূন্যতা চিরকাল বয়ে বেড়াবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্প।

নায়করাজ নেই চোখের দেখায়, তবু তিনি আছেন। আজকের চলচ্চিত্র দিবস উপলক্ষে সজ্জিত এফডিসির সবখানেই তাকে পাওয়া যাবে। তিনি আছেন এই আয়োজনের অনুপ্রেরণায়।

চলচ্চিত্র স্বার্থ সংরক্ষণ কমিটির সভাপতি অভিনেতা ফারুক বলেন, ‘নায়করাজ ছিলেন আমাদের অভিভাবক। এটা বেদনার যে তাকে ছাড়াই আমরা প্রথম কোনো উৎসব আয়োজন করতে যাচ্ছি। তিনি দৃশ্যমান নেই, কিন্ত তিনি আছেন অনুপ্রেরণায়, পোস্টারে।’

এদিকে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান জানালেন, নায়করাজকে শ্রদ্ধা জানানো হবে এবারের চলচ্চিত্র দিবস উদযাপনের আয়োজনে। তাকে নিয়ে থাকবে বিশেষ একটি পর্ব।

প্রসঙ্গত, এবার জাতীয় চলচ্চিত্র দিবসের সভাপতিত্ব করবেন চলচ্চিত্রের আরেক কিংবদন্তি পুরুষ সৈয়দ হাসান ইমাম। দিনটি উদযাপন করছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট নানা সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত চলচ্চিত্র স্বার্থ সংরক্ষণ কমিটির আয়োজনে।

পাশাপাশি আলাদাভাবে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে এফডিসিতেই চলচ্চিত্র দিবস পালন করবে এফডিসি কর্তৃপক্ষ। সভাপতিত্ব নিয়ে মতের অমিল হওয়ায় দুইভাগে পালিত হচ্ছে দিবসটি।

এলএ/বিএ/আরএস/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com