যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষক লাঞ্ছনার অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাঙ্গামাটি
প্রকাশিত: ০২:০৮ এএম, ০৯ নভেম্বর ২০১৮
অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা শাহ নজরুল ইসলাম

রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলায় স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্ত শাহ নজরুল ইসলাম রাঙ্গামাটি জেলা যুবলীগের সদস্য। বৃহস্পতিবার দুপুরে এই ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষক।

লাঞ্ছনার শিকার উপজেলার মাইনীমুখ মডেল বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিষয়ের শিক্ষক এম এ জামান অভিযোগ করে বলেন, ‘লংগদু মাইনীমুখ মডেল বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির সীমা আক্তার একজন অনিয়মিত ছাত্রী। সীমা জেএসসি ইংরেজি বিভাগের পুনঃপরীক্ষা দেয়ার কথা ছিল। পরীক্ষার আগে সব শিক্ষার্থীদের রুটিনও জানানো হয়েছে। রুটিন অনুসারে পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু শিক্ষার্থী সীমা আক্তার পরীক্ষা দিতে আসেনি। তাই তার ভাই নজরুল ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বাড়িতে এসে আমার স্ত্রীর সামনে আমাকে শারিরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।’

লাঞ্ছিত শিক্ষক বলেন, ‘তাদের অভিযোগ ছিল তার বোন সীমা আক্তার পরীক্ষার রুটিন আগে থেকে জানতো না। তাই সে পরীক্ষা দিতে পারেনি।’

তিনি বলেন, এতে আমার কী অপরাধ? কেন তার বোন পরীক্ষা দিতে পারেনি; তাও আমি জানি না?

তবে অভিযোগের বিষয়ে যুবলীগ নেতা নজরুলের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘এমন কিছুই হয়নি।’

ঘটনার বিষয়ে মাইনীমুখ মডেল বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুন নেছা রোজী বলেন, ‘কোনো অভিভাবক অন্যায়ভাবে একজন শিক্ষককের বাসায় গিয়ে মারধর করতে পারেন না। এটার উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত। আমি বিষয়টি ইউএনও স্যারকে অবগত করেছি।’

লংগদু উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) প্রবীর কুমার রায় বলেন, ‘শিক্ষকরা বিষয়টি আমাকে জানিয়েছেন। আমি তাদেরকে থানায় পাঠিয়েছি। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রঞ্জন কুমার সামন্ত বলেন, ‘এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী শিক্ষক। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]