‘সিনেমা হল বন্ধ হলে, শুরু হবে আন্দোলন’

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৬ পিএম, ১৩ মার্চ ২০১৯

ভারতীয় হিন্দি চলচ্চিত্র আমদানি ও প্রদর্শনের দাবি করেছিলেন হল মালিকরা। সেই দাবির প্রতিবাদে কয়েক বছর আগে কাফনের কাপড় পরে আন্দোলন করেছিল চলচ্চিত্রের মানুষেরা। সেখানে ছিলেন পরিচালক ও শিল্পী-কলাকুশলীরা। 

এবার একই দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে সিনেমা হল মালিকদের সমিতি। তারা জানিয়েছে, দাবি না মানলে আগামী ১২ এপ্রিল থেকে সিনেমা হল বন্ধ করে দেয়া হবে। এ নিয়ে নানারকম প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে সিনেমাপাড়ায়।

‘সিনেমা হল বন্ধ করলে এবং দেশে হিন্দি ছবি আমদানি করা হলে আবারও আন্দোলনে নামবে চলচ্চিত্র পরিবার।’ জাগো নিউজকে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে এভাবেই বললেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

তিনি বলেন, ‘উনারা আগেও সিনেমা হল বন্ধের হুমকি দিয়েছেন। যদি দেশীয় সংস্কৃতি বাদ দিয়ে, বঙ্গবন্ধুর আইনকে পাশ কাটিয়ে হিন্দি ছবি এনে দেশকে ধ্বংস করতে চায়; আমরা পুরো চলচ্চিত্র পরিবার ও শিল্পীদের পক্ষ থেকে এর জোর প্রতিবাদ জানাবো। আমরা আশা করবো সব সিনেমা হল মালিকরা তাদের এ সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না।’

জায়েদ খান আরও বলেন, ‘দু-একজন লোকের স্বার্থ উদ্ধারের জন্য তাদের অসাধু বুদ্ধিতে এসব হচ্ছে। ১২ এপ্রিল থেকে যদি হল বন্ধ করে দেয় আমরা পদক্ষেপ নেব। প্রয়োজন হলে আবারও আন্দোলন করবো, মাঠে নামবো। তারপরও বঙ্গবন্ধুর এফডিসিকে আমরা বিদেশি ছবির আগ্রাসনে ধ্বংস হতে দেব না।’

আজ (১২ মার্চ) দেশে বিদেশি ছবি প্রবেশের সহজ নীতিমালা ও দেশীয় ছবি নির্মাণ বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি। এ বিষয়ে সরকার যদি আনুষ্ঠানিক উদ্যোগ না নেয় তাহলে ১২ এপ্রিল থেকে দেশের সব প্রেক্ষাগৃহ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে এই সংগঠনটি। আজ দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটেতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন সমিতির নেতারা।

প্রদর্শক সমিতির পক্ষ থেকে হল বন্ধের ঘোষণা আসার পর থেকে তাকে এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছেন চিত্রনায়ক ফারুক ও রিয়াজসহ অনেকেই।

এমএবি/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :