এই দুর্যোগে গান বাজনায় মন বসাতে পারছি না : বেলাল খান

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩১ পিএম, ২২ মে ২০২০

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সুরকার বেলাল খান। অসংখ্য জনপ্রিয় গানের এই শিল্পী করোনা থেকে নিরাপদ থাকতে এখন ঘরেই অবস্থান করছেন পরিবারের সাথে। মানছেন লকডাউন।

তবে ঘরে বসেই নিজের কাজ করে চলেছেন। সর্বশেষ মা দিবসে একটি মা'য়ের গান প্রকাশ হয়েছে তার। এ গায়ক, সুরকারের সমসাময়িক ব্যস্ততা নিয়ে কথা বলেছেন জাগো নিউজের সাথে। সঙ্গে ছিলেন অরণ্য শোয়েব

জাগো নিউজ : গৃহবন্দি জীবন কেমন কাটছে?
বেলাল খান : লকডাউন যেদিন থেকে শুরু হয়েছে তার দুদিন পর থেকেই ঘরে আছি। সবার মনের যেমন অবস্থা আমার তার ব্যতিক্রম না। ঘরে বসেই সময়টা বিভিন্ন কাজে ব্যয় করছি। তবে এমন জীবন মনে হয় কেউই চাইবে না।

জাগো নিউজ : অবসরে কি করছেন?
বেলাল খান : বঙ্গো বিডির আয়োজনের হোম কনসার্ট করলাম ১১ জন শিল্পী। প্রথম আলোতে একটা লাইভ করলাম। প্রথম প্রথম ভালোই লাগছিলো। কিন্তু এখন সময়টা পার করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে।চারদিকেই উৎকণ্ঠ সৃষ্টি হয়েছে।

নেগেটিভ খবরগুলো সামনে চলে আসলে দেখতে খারাপ লাগছে। এই সময়টার সাথে মানিয়ে নেওয়াটা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। প্রথমকার দিকে একটু গান নিয়ে বসতাম সুর করার জন্য ভালোই লাগতো। কিন্তু এখন সেই দিকেও সময়টা দিতে পারছি না। গান বাজনায় মন বসাতে পারছি না। কিছুটা সময় এখন পরিবারের সাথে কাটানো হচ্ছে।

জাগো নিউজ : করোনায় রোজাগুলো কেমন যাচ্ছে?
বেলাল খান : এবারের রোজার মাসটা খুবই ভালো কাটলো। সেহেরি খেয়ে শুতে যাওয়া এবং ইফতার করে বাচ্চাদের সাথে সময় পার করা। মাঝে মধ্যে একটু সিনেমা দেখার চেষ্টা করি। বই পড়ি।

জাগো নিউজ : রমজান মাসে বিশেষ কি করলেন?

বেলাল খান : রোজা রাখছি। নামাজ পড়ছি। তারাবি পড়ছি। এটাই তো রমজান মাসের বিশেষ কাজ। এই মাসটা আমার দারুণ কেটেছে এবার।

জাগো নিউজ : এবারের ঈদে পরিকল্পনা কি?
বেলাল খান : ঘরে থেকেই ঈদটা উদযাপন করবো। পুরো সময়টা পরিবারের সাথেই কাটাবো। আমাকে যারা পছন্দ করেন তাদেরকে আমি আবারো বলবো- আমরা ঘরে থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবো। তাহলে দেশ সুরক্ষিত থাকবে।

জাগো নিউজ : দীর্ঘ এই লকডাউন চলাকালীন সময়টায় আপনার উপলদ্ধি কী?
বেলাল খান : এমন দিন কখনই দেখিনি আমি। তবে একটা বিষয়ের উপর আমার উপলদ্ধি হচ্ছে যে, যারা গ্রাম থেকে ঢাকায় এসে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য যুদ্ধ করি তাদের অধিকাংশেরই বাবা মা থাকেন গ্রামে। তাদের কাছে থাকার সুযোগ খুব একটা পাই না আমরা।

এই যেমন গত বিশ বছরের জীবনে এই প্রথম টানা আমি ৪০ দিন বাবা মায়ের সাথে থাকলাম। গেল ২০ বছরে হয়তো বিশ দিনের জন্যও থাকা হয়নি। করোনার কারণেই মা-বাবাকে এতোটা কাছে পেলাম। পরিবারের সঙ্গে থাকার এই সৌন্দর্যটা দান করে গেল করোনা।

জাগো নিউজ : নতুন গানের খবর কি ?
বেলাল খান : এবারের ঈদটা তো একেবারে সবার জন্যই অন্যভাবে আসতেছে। এর জন্য নতুন কোনো মিউজিক ভিডিও আসছে না। সেক্ষত্রে শুধু অডিও রিলিজ হচ্ছে সিডি চয়েজ থেকে 'অবুঝ' শিরোনামের। আমার নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে কোয়ারেন্টাইন টাইপের একটা ভিডিও আসবে গানসহ 'ফিরে আসো' শিরোনামে।

এছাড়া 'দ্বীন দ্য ডে' ছবিতে ইরানের এক শিল্পীর সাথে কাজ করেছি। ওখানকারই বিখ্যাত এক কম্পোজার এটি তৈরি করেছেন। এটিও প্রকাশ হতে পারে।

জাগো নিউজ স্পেশাল : শেষ দুই প্রশ্নের উত্তর চাই?
১/ কোন মিউজিক ডিরেক্টর সাথে কাজ করার ইচ্ছে আছে ?
উত্তর : প্রীতম, এ আর রহমান। উনাদের মিউজিক আমার খুব ভালো লাগে।

২/ আপনার প্রিয় গায়ক কে ?
উত্তর : নির্দিষ্ট কেউ নেই। আমার সবার গানই ভালো লাগে। আমার নতুন গান ভালো লাগে। প্রতিদিনই ভালো লাগার বিষয়টা বদলে নতুন সংযোজন হয়।

এলএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]