সরকারি অনুদান নিয়ে শর্ট ফিল্ম ফোরামের ক্ষোভ প্রকাশ

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩২ পিএম, ২৯ জুন ২০২০

প্রতি বছর চলচ্চিত্র নির্মাণে উৎসাহ দিতে অনুদান প্রদান করে সরকার। সেই ধারাবাহিকতায় ২০১৯-২০ অর্থবছরে সরকারি অনুদানে পূর্ণদৈর্ঘ্য ১৬টি ও স্বল্পদৈর্ঘ্য ৯টি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য অনুদান দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু সরকারি এ অনুদান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম ফোরাম।

গত ২৭ জুন তথ্য মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপনে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের চলচ্চিত্র অনুদান প্রসঙ্গে জানানো হয়। গতকাল (২৮ জুন) ফোরামের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসানের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা অসন্তস প্রকাশ করেন তারা।

এই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‌‘আমরা হতাশা এবং ক্ষোভের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, অনুদানের জন্য যে চলচ্চিত্র এবং পরিচালকদের নাম প্রকাশ করা হয়েছে তাদের বেশিরভাগই বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের সঙ্গে সম্পর্কিত এবং অনেকেরই চলচ্চিত্র পরিচালনার ন্যূনতম অভিজ্ঞতা আছে বলে আমাদের জানা নেই। সামাজিকভাবে দায়বদ্ধ এবং শৈল্পিক চলচ্চিত্র নির্মাণের যে অঙ্গীকার অনুদান নীতিমালায় সন্নিবেশিত রয়েছে এই ঘোষণা তার ব্যত্যয় বলেই আমরা মনে করি।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের সরকারি অনুদানের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে রাকিবুল হাসান বলেন—২০১৮-১৯ অর্থবছরেও চলচ্চিত্র সরকারি অনুদান নিয়ে অনেক বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বরাবরই তা উপেক্ষা করে তাদের স্বেচ্ছাচার অব্যাহত রেখেছেন। এমনকি যে চূড়ান্ত কমিটি অনুদানের জন্য চলচ্চিত্র নির্বাচন করেন, চলচ্চিত্র বিষয়ে তাদের যোগ্যতাও প্রশ্নসাপেক্ষ।’

প্রতিবাদ জানিয়ে রাকিবুল হাসান বলেন, ‘চলচ্চিত্র একটি শক্তিশালী গণ এবং শিল্পমাধ্যম যা রাষ্ট্রের স্বপ্ন, সংবেদ ও জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিচ্ছবি হয়ে উঠতে পারে। বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের স্থূল এবং বিকৃত বিনোদনের প্রসার জনগণের অর্থে কোনো অবস্থাতেই সঠিক নয়। প্রজ্ঞাপনে পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রামাণ্য চলচ্চিত্রের অনুপস্থিতি বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গিরই নামান্তর। আমরা এই সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

এবার পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে যারা অনুদান পাচ্ছেন তারা হলেন—প্রদীপ ঘোষ, ইস্পাহানি আরিফ জাহান, ফজলুল কবীল তুহিন, মুশফিকুর রহমান গুলজার, গিয়াসউদ্দিন সেলিম, সন্তোষ কুমার বিশ্বাস, পংকজ পালিত, আউয়াল রেজা, রওশন আরা রোজিনা, বদরুল আনাম সৌদ, এস এ হক অলিক, মোস্তাফিজুর রহমান মানিক, ঈফতেখার শুভ, মনজরুল ইসলাম।

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও প্রামাণ্যচিত্রে যারা অনুদান পাচ্ছেন তারা হলেন—প্রবীল কুমার সরকার, শরীফ মাহমুদ, এবিএন নাজমুল হুদা, সাজেদুল ইসলাম, দেবাশিষ দাশ, ফাখরুল আরেফীন খান, সোহেল আহমদ সিদ্দিকী, মিজ মিতালি রায়, মিজ চৈতালি সমাদ্দার।

এমএবি/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]