বলিউডের মানহানি! আদালতে শাহরুখ আমির সালমান ও অজয়রা

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৪৬ এএম, ১৩ অক্টোবর ২০২০

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যু এবং পরবর্তী ঘটনাক্রম ঘিরে তোলপাড় বলিউড। সেই বলিউডই এবার একজোট হয়ে মামলা করে দিলো ‘রিপাবলিক টিভির এডিটর ইন চিফ অর্ণব গোস্বামী এবং টাইমস নাও-এর সঞ্চালক নবিকা কুমার-সহ চার সাংবাদিকের বিরুদ্ধে।

সালমান খান, আমির খান, শাহরুখ খান, করণ জোহর, ফারহান আখতার, অজয় দেবগনের মতো অভিনেতা ও পরিচালক-প্রযোজকদের মোট ৩৪টি প্রযোজনা সংস্থা মিলে মামলা দায়ের করেছে দিল্লি হাইকোর্টে।

অর্ণব, নবিকা ছাড়াও অভিযোগের তালিকায় রয়েছেন রিপাবলিক টিভির সাংবাদিক প্রদীপ ভান্ডারি, টাইমস নাও-এর এডিটর-ইন-চিফ রাহুল শিবশঙ্করও।

বলিউডের সিনেমা জগৎ এবং তার সঙ্গে জড়িত অভিনেতা-অভিনেত্রী, পরিচালক, কলাকুশলীদের বিরুদ্ধে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন, অবমাননাকর ও অপমানসূচক রিপোর্টিং এবং মন্তব্য’ করার অভিযোগ আনা হয়েছে এই সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে।

এই দুটি চ্যানেলকে নিয়ন্ত্রণের দাবিও জানানো হয়েছে মামলাকারীদের পক্ষ থেকে। আইনি পরামর্শদাতা সংস্থা ডিএসকে লিগ্যালের পক্ষে দায়ের করা মামলায় বলা হয়েছে, ‘যেভাবে গোটা বলিউডের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হয়েছে, তাতে ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সিনেমা শিল্পের সঙ্গে যুক্ত সবার জীবন ও জীবিকা। মহামারির কারণে এমনিতেই কাজ হারানো, উপার্জন কমে যাওয়ার সঙ্কট চলছিল। এই প্রবণতা তাতে ক্ষতি করেছে আরও।’

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর বলিউডে উঠেছিল নোপোটিজমের অভিযোগ। তারপর মাদক যোগ নিয়েও তোলপাড় হয়েছে বাণিজ্যনগরীর রূপোলি জগৎ। মাদক চক্রে যুক্ত থাকার অভিযোগে রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করেছে এনসিবি।

কিন্তু একটি অপরাধে একজন অভিযুক্ত হলে সেই পেশা বা শিল্পের সঙ্গে জড়িত সবাই একই অভিযোগে অভিযুক্ত- এমন প্রবণতার বিরুদ্ধে আঙুল তুলেছেন মামলাকারীরা।

তাদের বক্তব্য, ‘একটি অপরাধের জন্য গোটা বলিউডকে জড়িয়ে দেওয়া, হয়েছে। এমনভাবে উপস্থাপনা করা হয়েছে, যেন গোটা বলিউড অপরাধী এবং মাদকের কারবারের সঙ্গে যুক্ত। তাতে জনসাধারণের মনে বলিউড সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা তৈরি হয়েছে এবং মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে জড়িতদের সম্মানের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।’

মামলায় বলিউডের প্রযোজক, পরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রীদের পাশাপাশি যুক্ত হয়েছে প্রোডিউসার্স গিল্ড অব ইন্ডিয়া।

এই সংগঠনের শামিল হওয়ার অর্থ প্রায় পুরো বলিউড মামলাকারীদের সঙ্গে। সংগঠনের ১৩০ সদস্যের মধ্যে শুধু পরিচালক-প্রযোজকই নয়, রয়েছেন বলিউডের প্রায় সব বড় স্টুডিওর মালিক। সঙ্গে আছে স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মগুলোও।

রোহিত শেট্টি, কবীর খান, বিধু বিনোদ চোপড়া, রমেশ সিপ্পি, রাকেশ রোশন, আশুতোষ গায়কোয়াড়, সাজিদ নাদিয়াদওয়ালা, সিদ্ধার্থ রায় কপুর, বিশাল ভরদ্বাজ, জোয়া আখতার, রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরার মতো বলিউডের সেরা প্রযোজক-পরিচালকরা তাদের মধ্যে অন্যতম।

এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]