সেনা সদস্যদের সঙ্গে অনন্ত জলিলের কিছু সুন্দর মুহূর্ত

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৩ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০২০

পেশায় ছিলেন ব্যবসায়ী। বর্তমানে তার আরও এক পরিচয়- তিনি ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়ক। বলছি অনন্ত জলিলের কথা। ২০১০ সালে তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে আবির্ভূত হন ডিজিটাল সিনেমার অবতার হিসেবে। তার আগমনে ঢালিউড নির্মাণে আধুনিকতার ছোঁয়া পায়। সিনেমার অ্যাকশন দৃশ্যেও আসে ব্যাপক পরিবর্তন।

১০ বছর ধরেই তিনি সিনেমা করে যাচ্ছেন নিয়মিত। এই যাত্রাপথে যেমন পেয়েছেন ব্যবাসায়িক সাফল্য তেমনি যোগ হয়েছে অনেক সমালোচনা ও বিতর্কও।

অনন্ত সবসময়ই শরীর সচেতন। শারীরিক ফিটনেস নিয়ে তিনি অনেকের কাছেই আইডল। সেই ভাবনা থেকেই ২০১৩ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল একটি সেমিনারে। যেখানে তিনি শারীরিক সুস্থতা ও ফিটনেস প্রসঙ্গে আলোচনা করেছিলেন।

দীর্ঘ সাত বছর পর সেই অনুষ্ঠানের কথা স্মরণ করলেন অনন্ত। আজ রোববার (২৯ নভেম্বর) তার নামে ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্টে সেই দিনটির স্মৃতিচারণ করা হয়েছে। বেশকিছু ছবি শেয়ার করা হয়েছে ভক্তদের সঙ্গে। লেখা হয়েছে কিছু অভিজ্ঞতার কথাও, ‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাথে অনন্ত জলিলের কিছু সুন্দর এবং স্মৃতিবিজড়িত মুহূর্ত।’

ছবির সঙ্গে শেয়ার করা একটি সংবাদের সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ও সৈনিকদের অনুরোধক্রমে ফিজিক্যাল ফিটনেসের প্রতি সেনা সদস্যদের উৎসাহিত করতে ২০১৩ সালের ৬ অক্টোবর এক অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয় বর্তমান চলচ্চিত্রের হার্টথ্রব অ্যাকশন হিরো অনন্ত জলিলকে।

সেদিন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৮৬ ব্যাটালিয়ন ফরমেশন মোটিভেশন টাইটেলে একটি অফিশিয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে এবং এই অনুষ্ঠানেই আমন্ত্রণ জানানো হয় অনন্তকে। অনুষ্ঠানে অনন্ত উপস্থিত সেনা সদস্যদের উদ্দেশ্যে ‘শারীরিক সুস্থতা বৃদ্ধি এবং জিমন্যাসিয়াম ব্যবহারের উপকারিতা’- শীর্ষক একটি মোটিভেশনাল ক্লাস নেন।

উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হতে শুরু করে সাধারণ সেনা সদস্যরা অনন্তকে কাছে পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। প্রিয় নায়ককে কাছে পেয়ে সেনা সদস্যরা ছবিও তোলেন।

প্রসঙ্গত, অনন্ত জলিল নতুন করে চমক নিয়ে আসছেন ‘দিন-দ্য ডে’ সিনেমার মাধ্যমে। ইরানের সঙ্গে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এ সিনেমায় তাকে দেখা যাবে আন্তর্জাতিক সংস্থার পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। নানারকম ভুল মতবাদে আসক্ত সন্ত্রাস গোষ্ঠী, মাদক পাচারকারীদের দমনে ভয়ঙ্কর সব অভিযানে অংশ নিতে দেখা যাবে তাকে। সম্প্রতি শেষ হয়েছে সিনেমার শুটিং। এখন মুক্তির অপেক্ষা।

এ সিনেমায় অনন্ত দর্শকের সামনে উপস্থাপন করবেন হৃদয় কাঁপানো সব অ্যাকশন দৃশ্য। তাকে দেখা যাবে অনেক ঝুঁকিপূর্ণ দৃশ্যেও। এসব দৃশ্যের জন্য সময় নিয়ে নিজেকে তৈরি করেছেন তিনি। ফলে ফিট এবং আকর্ষণীয় ফিগারের এক নতুন অনন্ত জলিলের দেখা মিলবে।

এলএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]