নারী নির্মাতাদের চলচ্চিত্র অনুদান দেবে সুলতানা’স ড্রিম

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:১৭ পিএম, ০৪ জানুয়ারি ২০২১

সুলতানা’স ড্রিম বা সুলতানার স্বপ্ন। দক্ষিণ এশিয়ায় নারী শিক্ষার অগ্রদূত বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের একটি গল্প। এটি ১৯০২ সালে প্রকাশিত হয় দ্য ইন্ডিয়ান লেডিস ম্যাগাজিনে। যেখানে বেগম রোকেয়া তার কল্পনার জগতকে দেখেছেন সম্পূর্ণ ভিন্নভাবে।

তার কল্পনার জগতে ছেলেরা অন্দর মহলে অবস্থান করে বিধায় মেয়েরা কোনো ভয় এবং সংকোচ ছাড়াই বাইরের জগতে বিচরণ করতে পারে।

কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপট একেবারেই ভিন্ন। আমরা প্রতিনিয়তই দেখতে পাই যে বাংলাদেশে নারীরা সহিংসতার শিকার হচ্ছে নানাভাবে। নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি একান্ত প্রয়োজন।

সেই ভাবনা থেকেই পথ চলছে সুলতানা’স ড্রিম। এ প্রতিষ্ঠানটির প্রযোজনায় ‘ব্রেকিং দ্য সাইলেন্স’ শিরোনামে নির্মিত হবে স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। ফিকশন, ডকুমেন্টারি, অ্যানিমেশন, কিংবা নিরীক্ষামূলক, অর্থাৎ যে কোনো ক্যাটাগরিতে ৫ থেকে ৮ মিনিটের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের গল্প ও প্রস্তাবনা জমা দেয়া যাবে এই প্রতিযোগিতায়। আর প্রস্তাবিত চলচ্চিত্রের ধারণা হবে নারীদের প্রতি যৌন সহিংসতা এবং তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করাকে কেন্দ্র করে।

আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ১৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী নারী নির্মাতারাই প্রস্তাবনা জমা দিতে পারবেন এই প্রতিযোগিতায়। প্রস্তাবনায় ছবিটি নির্মাণের কারণ, গল্পের সারাংশ, বাজেট ও কিছু ভিজ্যুয়াল রেফারেন্স (২-৪ মিনিটের ভিডিও, ছবি, পেইন্টিং বা স্কেচ) জমা দিতে হবে। যেখান থেকে বাছাই করে নেয়া হবে সেরাদের।

আর ৭ ফেব্রুয়ারি ঘোষণা করা হবে বিজয়ীদের নাম। অনুদান প্রদানের পাশাপাশি চলচ্চিত্র নির্মাণ বিষয়ক পরামর্শ এবং কারিগরি সহযোগিতা করা হবে বিজয়ীদেরকে।

নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রগুলো দেশব্যাপী প্রদর্শিত হবে। চলচ্চিত্র নির্মাতা রুবাইয়াত হোসেনের উদ্যোগে এই আয়োজনের সহ-আয়োজক হিসেবে থাকছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান খনা টকিজ। পরিবেশকের দায়িত্বে থাকছে গ্যেটে ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ।

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে হবে

এলএ/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]