দর্শকের পছন্দের গল্পে সিয়াম, নির্মাণ করবে স্প্রাইট

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩৩ পিএম, ০৬ মার্চ ২০২১

‘কোনো একটি শুটিংয়ের আগে প্রস্তুতি নিচ্ছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক সিয়াম আহমেদ। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে প্র্যাকটিস করছেন। কিন্তু মনমতো হচ্ছে না সংলাপ প্রয়োগ।খানিকটা ক্লান্তি ও হতাশা নিয়ে সোফায় বসে পড়েন তিনি। ঘামছেন। এরইমধ্যে চলে গেল বিদ্যুৎ।

হঠাৎ কেউ এগিয়ে দিলো একটি টাওয়েল। ভেসে এলো এক নারী কণ্ঠ। টাওয়েল নিয়ে মুখ মুছলেন। কিন্তু তাকিয়ে আশপাশে কাউকে দেখতে পেলেন না। কিছুটা ভয় নিয়ে আৎকে উঠে দাঁড়ালেন। এমনি সময় বারান্দা থেকে ভেসে এলো একটি মেয়ের কান্নার শব্দ। রহস্য জমে উঠতেই শেষ!

এটুকু ছিলো প্রথম পর্ব। এবার লিখতে হবে দ্বিতীয় গল্পটি। সিয়ামকে টাওয়েলটি দিলো কে আর কেইবা কাঁদছে বারান্দায়? কোনো মেয়ে নাকি অদৃশ্য কেউ। সেই গল্পটি লিখেবন জনপ্রিয় কোমল পানীয় স্প্রাইটের ভোক্তারা। এ আয়োজনের জন্য চলছে ক্যাম্পেইন।

এর অংশ হিসেবে প্রথমে স্প্রাইটের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে একটি চমকপ্রদ অসমাপ্ত গল্পের ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে মূল চরিত্রে আছেন বাংলাদেশে স্প্রাইটের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর জনপ্রিয় অভিনেতা সিয়াম আহমেদ।

নতুন এ ক্যাম্পেইনে দর্শক মতামতকে প্রাধান্য দিয়ে ভোক্তাদের গল্প বলার সুযোগ করে দিচ্ছে কোকা-কোলার লেমন-লাইম স্বাদের জনপ্রিয় কোমলপানীয় স্প্রাইট। ‘তোমার চয়েসে হোক স্প্রাইট এর গল্প’ শিরোনামে শুরু হওয়া ডিজিটাল ক্যাম্পেইনটির উদ্দেশ্য তরুণদেরকে গল্প লেখায় উৎসাহিত করা।

নির্দিষ্ট অপশনে ভোট দেওয়ার মাধ্যমে নিজেদের পছন্দের ‘স্প্রাইট স্টোরি’ বলার সুযোগ পাচ্ছেন বাংলাদেশের স্প্রাইটের ভোক্তারা।

দারুণ এক ট্যুইস্ট রেখেই অসমাপ্ত গল্পের প্রথম পর্ব শেষ করে দর্শকদেরকে পরবর্তী পর্বের গল্প নির্বাচনের জন্য ভোট প্রদানের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। পছন্দের অপশনটিতে ভোট দিয়ে নিজের পছন্দে অসমাপ্ত গল্পটির পরবর্তী পর্ব বাছাই করতে পারবেন ভোক্তারা।

স্প্রাইটের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজের ম্যাসেঞ্জারেও উত্তর লিখে পাঠানো যাবে। এভাবেই সংখ্যাগরিষ্টের মতামতকে প্রাধান্য দিয়ে নির্মিত হবে ভোক্তাদের ‘স্প্রাইট স্টোরি’। গল্প নির্বাচন হলেই পরবর্তী পর্বের দৃশ্যায়ণ হবে। সেখানে অভিনয় করবেন সিয়াম।

এ বিষয়ে নিজের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে স্প্রাইটের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর সিয়াম বলেন, ‘স্প্রাইটের উদ্যোগে দেশে প্রথমবারের মত আয়োজিত এ ধরনের একটি চমৎকার ও অনন্য ক্যাম্পেইনের অংশ হতে পেরে আমি রোমাঞ্চিত। এখন তরুণ ভোক্তারা এই ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণ করে কিভাবে তাদের নতুন নতুন আইডিয়া, ভাবনা এবং সৃজনশীল কল্পনাশক্তি দিয়ে গল্পে চমকপ্রদ ট্যুইস্ট এনে দেয়, সেটাই দেখার জন্যই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।’

ক্যাম্পেইনটির পেছনের ভাবনা তুলে ধরে কোকা-কোলা বাংলাদেশ এর ডিরেক্টর অজয় বাতিজা বলেন, ‘অভিনব এ আইডিয়া বুদ্ধির বিকাশ ঘটাতে ভোক্তাদেরকে উৎসাহিত করবে বলে প্রত্যাশা করছি।’

এলএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]