অনন্ত জলিলকে অনুরোধ করে যা বললেন মুফতি সালমান ফারসি

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০৩ পিএম, ১৪ মার্চ ২০২১

‘দেশে সব সিনেমা হল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। সব নায়ক নায়িকারা সিনেমা ছেড়ে তওবা করে দ্বীনের পথে চলে এসেছে। সবাই পর্দা করছে। এমন সময় অনন্ত জলিল সাহেব ১২০ কোটি টাকার বিগ বাজেটের একটি সিনেমা বানিয়ে সিনেমা হলগুলোকে আবারও খুলে দেয়ার বাস্তব ব্যবস্থা নিয়েছেন। আমি বিনীত অনুরোধ করবো অনন্ত সাহেবকে, আপনি সিনেমা ছেড়ে দিন। নিজের যৌবন ও অর্থকে দ্বীনের পথে, ইসলামের পথে নিয়োজিত করুন।’

সম্প্রতি একটি ওয়াজ মাহফিলে এভাবেই ঢালিউডের চিত্রনায়ক অনন্ত জলিলকে সিনেমা ছেড়ে দিয়ে দ্বীনের পথে যাওয়ার আহ্ববান করলেন মুফতি সালমান ফারসি। তার এই ওয়াজের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে নেট দুনিয়ায়।

গেল ২৭ ফেব্রুয়ারি এক সংবাদ সম্মেলনে ১২০ কোটি টাকা ব্যায়ে নতুন একটি সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা দেন ‘অসম্ভবকে সম্ভব করা’ সংলাপের অভিনেতা অনন্ত জলিল। ‘নেত্রী : দ্য লিডার’ নামের সিনেমার সেই ঘোষণা চলচ্চিত্র শিল্পে দারুণ আলোচিত হয়েছে। বিষয়টি সাড়া ফেলেছে সারা দেশেও। তার প্রমাণ মিললো মুফতি সালমান ফারসির ওয়াজ মাহফিলে।

তিনি ১২০ কোটি টাকার সিনেমা প্রসঙ্গে অনন্তকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘অনন্ত জলিল সাহেবকে আল্লাহ অর্থ দিয়েছেন। তিনি সিআইপি। তার স্ত্রী নায়িকা। অনেক টাকা তাদের। তিনি ১২০ কোটি টাকা দিয়ে সিনেমা তৈরি করার ঘোষণা দিয়েছেন। চলচ্চিত্র জগতে এত টাকা দিয়ে ইতিপূর্বে কেউ সিনেমা নির্মাণ করেনি। এখানে বাংলাদেশ, ইরান, ভারত ও ইউরোপ আমেরিকার শিল্পীরা কাজ করবে।

কয়েকদিন আগে দেখেছিলাম দাড়ি, টুপি ও জোব্বা পরে হেলিকপ্টার নিয়ে তিনি মানুষকে সহযোগিতা করেছেন। গত কয়েকদিন আগে তার মাথায় পাগড়ি ছিল। ভেবেছিলাম তিনি সিনেমা থেকে সরে আসবেন। ইসলামের প্রচারণায় আসবেন। তার ছেলেকে মাদ্রাসায় পড়াবেন বলেও শুনেছিলাম।’

এরপরই মুফতী সালমান ফারসি বলেন, ‘আমার প্রিয় অনন্ত জলিল ভাইয়ের কাছে অনুরোধ-আল্লাহকে ভয় করুন। আপনার কাছে বিনীত আবদার করছি- সিনেমা নির্মাণ করে জাতিকে গুনাহের দিকে ডাক দিয়েন না। যৌবন থাকবে না, অর্থ থাকবে না। স্ত্রীও থাকবে না। আমিও থাকবো না। আমার স্ত্রীও থাকবে না। এসব থাকবার বিষয়ও না। যা থাকবে তা হলো আমল।’

এ ওয়াজের ভিডিওটির নিচে অনেকেই অনন্ত জলিলকে ১২০ কোটি টাকা দিয়ে মসজিদ মাদ্রাসা বানানোর পরামর্শ দিয়েছেন। তবে অনেকে এই ওয়াজের সমালোচনাও করেছেন। অনন্ত জলিলের দান খয়রাতের মানসিকতার প্রশংসা করে তারা দাবি করছেন, ‘অনন্ত যথেষ্টই ইসলামি জীবনযাপন করেন। অনেক মুফতি মাওলানাদের চেয়েও সৎ তিনি।’

প্রসঙ্গত, অনন্ত জলিল ও বর্ষা অভিনীত ‘দিন : দ্য ডে’ সিনেমাটি আগামী পবিত্র ঈদুল আজহায় পাঁচটি ভাষায় ৮০টি দেশে মুক্তি দেওয়া হবে। সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন ইরানি পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম। বাংলাদেশ ছাড়াও ইরান, তুরস্ক ও আফগানিস্তানে সিনেমাটির শুটিং হয়েছে। ইরানের মুর্তজা অতাশ জমজম এবং বাংলাদেশের প্রযোজক অনন্ত জলিলের ‘এজে’ ব্যানারে নির্মিত হয়েছে সিনেমাটি।

এলএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]