তৃতীয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হবে ‘ঘোর’

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২৫ পিএম, ২০ জুন ২০২১

‘সবার জন্য চলচ্চিত্র, সবার জন্য শিল্প-সংস্কৃতি’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে চলছে ‘তৃতীয় বাংলাদেশ স্বল্পদৈর্ঘ্য ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১’।

দেশের ৬৪ জেলা শিল্পকলা একাডেমির ব্যবস্থাপনায় এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমি ফিল্ম সোসাইটির সহযোগিতায় চলতি মাসের ১৮ তারিখ থেকে শুরু হয়েছে ৮ দিনের এই উৎসব।

এখানে চতুর্থ দিন ২১ জুন সোমবার সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিটে দেশের ৬৪ জেলার শিল্পকলা একাডেমিতে একযোগে প্রদর্শিত হবে কবি বীরেন মুখার্জী নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য কাহিনী চলচ্চিত্র ‘ঘোর-দ্য ইনটেন্স অব লাইফ’।

এ প্রসঙ্গে চলচ্চিত্রের কো-অর্ডিনেটর এসডি প্রিন্স বলেন, ‘দেশের জাতীয় উৎসবে আমাদের স্বল্পদৈর্ঘ্য কাহিনি চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হচ্ছে, এ খবরে টিমের সবাই আনন্দিত। ২০১৯ সালের মার্চে কলকাতার নন্দনে অনুষ্ঠিত সার্কদেশভুক্ত আট দেশের চলচ্চিত্র নিয়ে ‘দ্বিতীয় দক্ষিণ এশীয় চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৯’-এ চলচ্চিত্রটির প্রথম প্রদর্শনী হয়।

অধুনালুপ্ত দৈনিক আজকের কাগজ সাময়িকীতে ১৯৯৭ সালে বীরেন মুখার্জীর ছোটগল্প ‘মস্তকহীন থেকে ‘ঘোর-দ্য ইনটেন্স অব লাইফ’র চিত্রনাট্য রচনা এবং পরিচালনা করেছেন তিনি। অভিনয় শিল্পীরাও খুব দক্ষতার সঙ্গে অভিনয় করেছেন। আশা করি দর্শকদের ভালো লাগবে।’

কবি ও নির্মাতা বীরেন মুখার্জী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পর আহত এক বীরমুক্তিযোদ্ধার জীবনসংগ্রাম, দাম্পত্যপ্রেম ও সংকট ‘ঘোর-দ্য ইনটেন্স অব লাইফ’ চলচ্চিত্রের কাহিনিতে গুরুত্ব পেয়েছে। একটি বাস্তব ঘটনার ছায়া অবলম্বনে গল্পটি লেখা হয়। বাঙালির নিজস্ব ঐতিহ্য-দর্শনও উঠে এসেছে কাহিনিতে। তিনি চলচ্চিত্রের শিল্পী ও কুশলীদের অভিনন্দন জানান।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি সূত্রে জানা যায়, আগামী ২৫ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় সমাপনী অনুষ্ঠানে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে উৎসবের সমাপ্তি ঘটবে।

এ বছর উৎসবে স্বল্পদৈর্ঘ্য কাহিনী চলচ্চিত্র ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র মিলে মোট ১১৯ টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হচ্ছে।

এলএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]