প্রিয়জনদের স্মৃতিতে ড. ইনামুল হক

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১৫ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০২১

বরেণ্য অভিনেতা, নাট্যকার ও শিক্ষক ড. ইনামুল হক সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে মৃত্যুবরণ করেছেন। রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। হুট করে প্রিয় মানুষের
মৃত্যুতে শিল্প ও সংস্কৃতি অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

ভেসে আসছে একের পর শোকের বার্তা। ফেসবুক যেন শোক বই। চোখ ভিজে আসে নানা জনের স্মৃতিচারণায়।

সবার ভিড়ে ইনামুল হকের দীর্ঘদিনের সহকর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব মামুনুর রশিদ শোক প্রকাশ করেছেন। তাকে নিয়ে শোকের সাগরে ভেসে স্মৃতিচারণ করেছেন মলয় ভৌমিক, মাসুম রেজা, সুবর্ণা মোস্তাফাও।

মামুনুর রশিদ
খবরটা শুনেই আমি খুব দুঃখ পেয়েছি। কিছু বলার মতো অবস্থা আমার নেই। দীর্ঘ দিনের বন্ধুকে হারিয়ে ফেললাম। ভীষণ ভালো মানুষ ছিলেন তিনি। অসাধারণ একজন বন্ধু ছিলেন। থিয়েটারের সত্য ও ত্যাগী একজন মানুষ ছিলেন। শিক্ষকতাও করেছেন। এমন একজনকে হারিয়ে ফেলা সত্যিই বড় ধরনের ক্ষতি। প্রিয় বন্ধুকে শেষবার দেখবো এবং শ্রদ্ধা জানাবো।

মলয় ভৌমিক
তিনি মানুষ হিসেবে সজ্জন ব্যক্তি ছিলেন। আমাদের সংস্কৃতি অঙ্গনে যে ক’জন মানুষ শিল্পের জন্য প্রাণপন লড়েছেন তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন নাট্যজন ড. ইনামুল হক। কোনো কিছু ভালো দেখলে তিনি উৎসাহ দিতেন। বিশেষ করে বলতে হয় লাকি ইনামের সঙ্গে উনার দুর্দান্ত একটা জীবন কাটিয়ে যাওয়ার কথা। আমার দেখা এমন মিষ্টি ও ভালোবাসায় আবদ্ধ হয়ে থাকা সেরা জুটি তারা। বাংলাদেশে যে পারিবারিকভাবে এই নাট্য যাত্রা অবদান রাখা যায় সেটাও তারা দেখিয়েছেন। তাদের পরিবারের সব সদস্যই নাট্য চর্চার সঙ্গে জড়িত। সেটা মঞ্চে ও টেলিভিশন; সবখানেই। অভিনেতা হিসাবে তো বটেই, মানুষ হিসেবেও তিনি অনেক বড় মাপের ছিলেন। একজন জনপ্রিয় এবং ভালো শিক্ষকও ছিলেন। মানুষের কাছে অনুপ্রেরণা হিসেবে একটি আদর্শ নাম ড. ইনামুল হক।

সুবর্ণা মুস্তাফা
ইনাম স্যারের মৃত্যুতে আমি মর্মাহত, হতবাক। কিছুই বলার ভাষা নেই। শান্তিতে থাকুন ইনাম স্যার। আপনার মতো আর কেউ হবে না। লাকি ভাবি, হৃদি এবং প্রৈতির প্রতি আমার গভীর সমবেদনা।

মাসুম রেজা (ফেসবুক থেকে)
হারানোর পাল্লা অনেক বেশি ভারী হয়ে যাচ্ছে। আমাদের মত হালকারা থেকে যাচ্ছি আর এক পাশে খ্যাতিমান নাট্যকার, নির্দেশক, অভিনেতা, একুশে পদকে ভূষিত ড. ইনামুল হক চলে গেলেন। বিদায় ইনাম ভাই। আপনাকে অনেক ভালোবাসতাম।

এমআই/এলএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]