‘মিশন এক্সট্রিম’ দেখতে হলমুখী দর্শক

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪১ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

দীর্ঘদিন ধরেই ইন্ডাস্ট্রিতে ধারাবাহিক সাফল্য দেখাতে পারছে না সিনেমাগুলো। হুট করে একটি সিনেমা সফল হওয়ার পর দেখা যায় লম্বা বিরতি। তবে চলচ্চিত্র বিশ্লেষকরা মনে করছেন ২০২১ সালের ডিসেম্বর থেকে একটা নতুন যাত্রা হতে যাচ্ছে ঢালিউডের। যেখানে নিয়মিত সফল হতে পারে এমন কিছু সিনেমার হাত ধরে আশাবাদী হয়ে উঠছেন অনেকেই।

সেই আশার যাত্রায় প্রথম পদক্ষেপ ছিলো ‘মিশন এক্সট্রিম’। বহুল প্রতীক্ষিত সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে গতকাল ৩ ডিসেম্বর। বিগ বাজেটের ছবি। নানা প্রজন্মের জনপ্রিয় তারকারা রয়েছেন। দুর্দান্ত সফল পুলিশি থ্রিলার ‘ঢাকা অ্যাটাক’র একটা আমেজ আছে। এইসব ভাবনায় ছবিটি নিয়ে প্রত্যাশা ছিলো আকাশ ছোঁয়া।

সেই প্রত্যাশা পূরণে বলা চলে সফল একটি দিন কাটালো ‘মিশন এক্সট্রিম’। মুক্তির প্রথম দিনেই দর্শক টানতে সক্ষম হয়েছে সিনেমাটি। দেশের নানা প্রান্তের ৫০টির মতো হলে দেখা যাচ্ছে ছবিটি। প্রায় সবগুলো হলেই হাউজফুল শো চলার খবর মিলেছে। এমন তথ্য দিলেন ছবিটির পরিচালক সানী সানোয়ার।

এদিকে ঢাকার সিনেপ্লেক্সগুলোতে ভিড় ছিলো অনেক বেশি। দর্শক লাইন দিয়ে টিকিট কিনেছেন। অনেকে অগ্রিম টিকিট বুকিং করছেন। সিনেপ্লেক্সগুলোতে খোঁজ নিতে গিয়ে এই তথ্য পাওয়া গেল। তারা বলছেন, অনেকদিন পর দেশের সিনেমা দেখতে দর্শক লাইনে দাঁড়াচ্ছেন। এই চিত্রটা নিয়মিত হলে ঢালিউডের চেহারটা বদলে যেত।

এদিকে করোনা প্রাদুর্ভাবের পর থেকে ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমাই প্রচুর পরিমাণে দর্শক হলে টানতে সক্ষম হয়েছে।

ছবির পরিচালক সানী সানোয়ার জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি কখনো চিন্তা করিনি যে করোনার বিপর্যয়ের পর দর্শক এমনভাবে আমাদের সিনেমাটা দেখতে হলে আসবেন। অভাবনীয় আসলে। গতকাল সারা দেশে ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমাটি খুব ভালো চলেছে। অনেকদিন পর দর্শক দল বেঁধে সিনেমা দেখতে গেছেন। হল মালিকরা খুব খুশি ছবিটি নিয়ে। তারা আশাবাদী এই সিনেমা নিয়ে। তারা টানা দুই সপ্তাহ ছবিটি চালাতে চাইছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘গতকাল ঢাকার আশপাশে দুইটা হলে গিয়েছিলাম আমরা টিম নিয়ে। সেখানে রেসপন্স ছিলো খুবই আনন্দময়।’

‘গতকাল দেশের প্রায় ৫০টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘মিশন এক্সট্রিম’। প্রায় সবগুলো সিনেমা হলে ছবিটি থাকবে পরের সপ্তাহেও। নতুন সপ্তাহে আরও প্রায় ৪০টি সিনেমা হল যুক্ত হবে। ছবিটি নিতে অনেক হল মালিকরা আগ্রহ দেখাচ্ছেন। কিন্ত আমরা হলের পরিবেশকে গুরুত্ব দিচ্ছি। কারণ করোনার কারণে অনেকদিন অনেক হল বন্ধ ছিলো। বর্তমানে সেগুলোর কি অবস্থা, চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর যোগ্য কি না, দর্শকরা কোনো ভোগান্তিতে পড়বেন কি না এগুলো দেখছি’- যোগ করেন সানী সানোয়ার।

ছবিটির আরেক পরিচালক ফয়সাল আহমেদও গতকাল তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বেশ কিছু হাউজফুল শোয়ের ছবি শেয়ার করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা অনেকে মিলে নিজেদের সর্বোচ্চটা দিয়ে ‘মিশন এক্সট্রিম’ নির্মাণ করেছি। প্রচার প্রচারণাতেও কমতি রাখিনি। কতোটা সফল হবো তা দর্শকদের উপর নির্ভর করছে। তবে প্রথমদিনের যা সাড়া এসেছে তাতে করে আশা জাগছে খুব ভালো কিছুর।’

পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রে রয়েছেন ঢাকাই সিনেমার ‘মাসলম্যান’খ্যাত অভিনেতা আরিফিন শুভ। এ ছবিতে তার অভিনয় নিয়েও প্রশংসা হচ্ছে। অ্যাকশনধর্মী সিনেমায় যেন ক্রমেই নিজেকে অতুলনীয় করে তুলছেন তিনি।

শুভ ছাড়াও এ সিনেমায় অভিনয় করেছেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’খ্যাত তাসকিন রহমান, মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী, সাদিয়া নাবিলা ও সুমিত সেনগুপ্ত।

কপ ক্রিয়েশনের ব্যানারে নির্মিত সিনেমাটির অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন- রাইসুল ইসলাম আসাদ, ফজলুর রহমান বাবু, শতাব্দী ওয়াদুদ, মাজনুন মিজান, ইরেশ যাকের, মনোজ প্রামাণিক, আরেফ সৈয়দ, সুদীপ বিশ্বাস দীপ, রাশেদ মামুন অপু, এহসানুল রহমান, দীপু ইমামসহ অনেকে।

ছবির গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন পুলিশ সুপার সানী সানোয়ার নিজেই। সিনেমাটির সহযোগী প্রযোজক হিসেবে রয়েছে মাইম মাল্টিমিডিয়া ও ঢাকা ডিটেকটিভ ক্লাব।

ছবিটি দেশের পাশাপাশি ইউরোপ আমেরিকার কয়েকটি দেশের সিনেমা হলেও মুক্তি পাবে।

এমআই/এলএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]