বিজয়ের মাসে আসছে ‘জাগো বাহে’

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০৪ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

বিজয়ের মাসে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘নগদ’ নিবেদিত চরকি অরিজিনাল সিরিজ ‘জাগো বাহে’। বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) থেকে প্রতি সপ্তাহে অ্যান্থোলজি এই সিরিজের একটি করে পর্ব মুক্তি পাবে। সিরিজের ‘শব্দের খোয়াব’ পর্বটি পরিচালনা করেছেন সিদ্দিক আহমেদ, ‘লাইটস, ক্যামেরা... অবজেকশন’ করেছেন সালেহ সোবহান অনীম এবং সুকর্ণ শাহেদ ধীমান করেছেন ‘বাংকার বয়’।

সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ‘জাগো বাহে’ সিরিজটির ট্রেইলার মুক্তি দেয়া হয়েছে। এ আয়োজনে প্রতিটি পর্বের আলাদা পোস্টার ও টিজারও উন্মোচিত হয়।

‘শব্দের খোয়াব’-এর পরিচালক সিদ্দিক আহমেদ বলেন, ‘ভিন্ন কিছু করার প্রয়াস থেকেই আমরা এমন তিনটা গল্প বলেছি যা দিয়ে আমাদের জাতি হিসেবে জেগে ওঠার বা ক্রমশ প্রতিবাদী হয়ে যাত্রাটা ধরতে পারি। আমি ব্যক্তিগতভাবে পরিচালনা করেছি শব্দের খোয়াব যা ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনকে প্রতিনিধিত্ব করে। যেটা থেকেই আসলে সব কিছুর শুরু। একটা অফিসের গল্প বলেছি যা হয়ে উঠেছে দেশের রূপক। শ্যুটিংয়ে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং ছিল ওই সময়টাকে ধরা। কারণ রাস্তাঘাট পরিবেশ কিছুই আর আগের মতো নেই। সবকিছুকেই আসলে নতুন করে বিনির্মাণ করে নিতে হয়েছে। সবার দলগত প্রচেষ্টা ছিল বলেই কাজটা সম্ভব হয়েছ।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুটিংয়ে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং ছিল ওই সময়টাকে ধরা। কারণ রাস্তাঘাট পরিবেশ কিছুই আর আগের মতো নেই। দলগত প্রচেষ্টার ভেতর আমার টিম ছাড়াও অভিনেতা এবং চরকি টিমের লোকদের অফুরন্ত সহায়তা পেয়েছি।’

সালেহ সোবহান অনীম তার ‘লাইটস, ক্যামেরা... অবজেকশন’ বলেন, ‘এই সিনেমাটা সংলাপ নির্ভর। সিনেমাটা ব্যক্তিগতভাবে খুব পছন্দের। সিনেমার আইডিয়া থেকে শুরু করে স্ক্রিপ্টিং পর্যন্ত লেখকরা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছে। আর সব মিলিয়ে অভিনেতারা শ্যুটিংয়ের সময় খুব বড় সাপোর্ট দিয়েছেন।’

‘বাংকার বয়’-এর পরিচালক সুকর্ণ সাহেদ ধীমান বলেন, ‘বাংকার বয় সিনেমাটা মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে নির্মিত। সিনামটির প্রয়োজনে যুদ্ধক্ষেত্র বিনির্মাণ করতে হয়েছিল। এমন লোকেশন খুঁজে পেতেই সহকর্মীদের সবচেয়ে বেশি ঘাম ঝরাতে হয়েছে। তাছাড়া বৃষ্টি, কাদা ও শীতে অভিনেতারাও প্রচন্ড পরিশ্রম করেছেন। আশা করি, সিরিজটি দর্শকদের কাছে নতুন অভিজ্ঞতা নিয়ে হাজির হবে।’

সম্মেলনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত অভিনেতা গাজী রাকায়েত বলেন, ‘সেটে স্ক্রিপ্ট নিয়ে সবাই খুব ব্যস্ত ছিল। এখন এমনতা দেখা যায় না। যেটা আমার খুব ভালো লেগেছে।’

মস্তোফা মন্ওয়ার বলেন, ‘১৯৭০ সালে জহির রায়হানের যে সিনেমাটা আটকে দেয়া হয় সেটা নিয়েই এই গল্প।’

তিনি আরও বলেন, ‘জহির রায়হানের চরিত্র ফুটিয়ে তোলা আমার জন্য খুব চ্যালেঞ্জিং ছিল। আমি খুব ভয়ে ছিলাম।

আব্দুল্লাহ আল শান্ত বলেন ‘আমি চরিত্রটা পাওয়ার পর খুব সারপ্রাইজ হই। আমি যখন গল্পটা শুনি তখন থেকেই আমি গল্পে হারিয়ে যাই। তারপর থেকেই চেষ্টা করেছি নিজের চরিত্র ফুটিয়ে তোলার।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চরকির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি, নগদ-এর নির্বাহী পরিচালক নিয়াজ মোর্শেদ এলিট, ফিল্ম নোয়া থেকে সৈয়দ আহমেদ শাওকী, দোহা রাফি, মশিউর রিপন, রেহমান সনেট। ‘জাগো বাহে’র ট্রেইলার মুক্তির উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন এই সিরিজের নির্মাতা, শিল্পী ও কলাকুশলীরা।

এলএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]