অবশেষে বার্লিন জয় করলো বাংলাদেশের চিত্রনাট্য ‘দ্য আনসারটেনিটি’

আহমাদুল কবির
আহমাদুল কবির আহমাদুল কবির , মালয়েশিয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৫:৩৬ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২

বার্লিন ইন্টারন্যাশনাল আর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের সব প্রতিযোগীকে হারিয়ে শ্রেষ্ঠ পূর্ণদৈর্ঘ্য কাহিনিচিত্রের পুরস্কার জিতে নিলো বাংলাদেশের চলচ্চিত্র পরিচালক জাফর ফিরোজের ‘দ্যা আনসারটেনিটি’।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) অফিসিয়ালি খবরটি নিশ্চিত করে ফেস্টিভাল কমিটি। জার্মানির মঞ্চে বাংলাদেশের বিজয়ের গল্প সত্যি এই মুহূর্তে অনেক বড় একটি আনন্দের সংবাদ। সত্য গল্প অবলম্বনে চিত্রনাট্যটি লিখা হয়েছে।

জাফর ফিরোজ বলেন, এটি আমার বাবার জীবনের গল্প। ১৯৭০-এর ১২ নভেম্বর উপকূলীয় অঞ্চলে ভয়াল ঘূর্ণিঝড় এবং জলোচ্ছ্বাসে ১০ লক্ষাধিক মানুষ মৃত্যুবরণ করেছিল। তখন ভোলার অনেক পরিবার নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছিল। অনেক পরিবার তাদের আত্মীয়স্বজন, বাবা-মা, ভাইবোন হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছিল।

তিনি বলেন, সেই জলোচ্ছ্বাসে আমার এক বোন হারিয়ে যায়। তিনিই ছিলেন তখন বাবার একমাত্র সন্তান। তখন আমাদের কারোই জন্ম হয়নি। বাবাকে দেখিছি মেয়েকে খোঁজার জন্য বিভিন্ন যায়গায় চলে যেতেন। যখন শুনতেন অমুক যায়গায় একটি মেয়ে পাওয়া গেছে; বাবা ছুটে যেতেন সেখানে। এখনো বাবাকে তার হারিয়ে যাওয়া মেয়ের জন্য অপেক্ষা করতে দেখি।

সেই জলোচ্ছ্বাসে আমাদের পরিবারে কতটা প্রভাব ফেলেছে তা আমি উপলব্ধি করেছি। একটি সুন্দর সাজানো সংসার প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে কিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় আমি এই গল্পে তা তুলে আনার চেষ্টা করেছি। পুরো বিশ্ব যখন জলবায়ু পরিবর্তনে সমাধানের বিষয়ে একমত তখন জাফর ফিরোজের এই চিত্রনাট্যটি জনসচেতনতায় ভূমিকা রাখবে। জাফর ফিরোজ এখন চলচ্চিত্র বিষয়ে মালয়েশিয়াতে পিএইচডি করছেন।

এমআরএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]