৪ বছর পর সালাহউদ্দিন লাভলু ও মাসুম রেজা জুটির নাটক

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:০৫ পিএম, ০৬ এপ্রিল ২০২২

ছোট পর্দার জনপ্রিয় পরিচালক ও অভিনেতা সালাহউদ্দিন লাভলু। নাট্যকার মাসুম রেজার চিত্রনাট্যে বহু নাটক তিনি নির্মাণ করেছেন। লাভলুর ক্যারিয়ারের একমাত্র সিনেমা ‘মোল্লাবাড়ির বউ’ ছবিরও চিত্রনাট্য করেছেন মাসুম রেজা। প্রায় ৪ বছর হতে চললো লাভলু-রেজা কোনো কাজ করেননি একসঙ্গে।

আসছে রোজার ঈদে সেই বিচ্ছেদে বিরতি পড়ছে। মাসুম রেজার লেখায় ৬ পর্বের নাটক নির্মাণ করছেন সালাহউদ্দিন লাভলু। নাটকটির নাম ‘ঝড়ে বক পড়ে’।

আবার একসঙ্গে কাজ করা প্রসঙ্গে মাসুম রেজা বলেন, ‘হঠাৎ লাভলুর ফোন পেলাম। বললো, বন্ধু ঈদের নাটক লিখে দিতে হবে। হিসেব করে দেখলাম প্রায় চার বছর লাভলুর সাথে কাজ করিনি। তাই কোনো কিছু না ভেবেই এই চিত্রনাট্যটা তৈরি করে দিলাম।’

কিন্তু কেন দুই বন্ধুর এই দীর্ঘ দূরত্ব? জবাবে মাসুম রেজা হেসে ওঠেন। বলেন, ‘এমনি এমনি। স্পষ্ট কোনো কারণ নেই। লাভলু লিখতে বলেনি, তাই লিখিনি। এখন বললো, লিখে দিলাম।’

ঝড়ে বক পড়ে’ নাটকটির গল্পে দেখা যাবে, জ্যোতিষ বাড়ির বড় ছেলের কেরামতি। মূল জ্যোতিষ মারা যাওয়ার পর বাড়ির বড় ছেলে যা বলে তাই ঘটে! বিষয়টি অনেকটাই ঝড়ে বক পড়ার মতো। একই বাড়ির ছোট ছেলে ভালোবাসে গ্রামের সুন্দরী হিমিকে। হিমি আবার ভালোবাসে গ্রামের এক ফুটবলারকে। তৈরি হয় প্রেম ও জ্যোতিষ বিদ্যার জটিল সমীকরণ।

নির্মাতা সালাহউদ্দিন লাভলু জানান, ঢাকার অদূরে নাটকটির শুটিং চলছে এখন।এই ঈদে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে টানা ৬ দিন সম্প্রচার হচ্ছে এটি। পটভূমি যথারীতি প্রেম ও ফোক।

মাসুম-লাভলু জুটির সর্বশেষ ধারাবাহিক হয় ২০১৮ সালে। ‘দ্য ভিলেজ ইঞ্জিনিয়র’ নামের এই কাজটি প্রচার হয় আরটিভিতে।

এমআই/এলএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]