পদ্মা সেতুর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানালো চলচ্চিত্র পরিষদ

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩৪ পিএম, ২৭ জুন ২০২২

অবশেষে শুভ উদ্বোধন হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর। গত ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সেতুর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন৷ প্রধানমন্ত্রীর একান্ত চেষ্টায় বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে ৩০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে এই সেতু, যা এই দেশের মানুষকে গর্বিত করেছে।

সারাদেশের মানুষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দিত করছেন৷ সেই তালিকায় যোগ দিলেন চলচ্চিত্রকর্মীরাও।

 সোমবার (২৮ জুন) এফডিসিতে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলোর সমন্বয়ে গঠিত চলচ্চিত্র পরিষদ থেকে পদ্মা সেতু নির্মাণ ও উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিষদের আহ্বায়ক চিত্রনায়ক আলমগীর। আরও ছিলেন পরিচালক নেতা সোহানুর রহমান সোহান, শাহীন সুমন, কাজী হায়াৎ, দেলোয়ার জাহান ঝন্টু, শিল্পী সমিতির নেতা রিয়াজ, ফেরদৌস, নিপুণ, সীমান্তসহ সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

নায়ক আলমগীর বলেন, ‘পদ্মা সেতু আমাদের নিজেদের অর্থায়নের সেতু। এই সেতু আমাদের অহংকার। আমরা এই অহংকার অর্জন করেছি আমাদের প্রিয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তার কাছে আমাদের কৃতজ্ঞতা।'

নায়ক রিয়াজ বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মজবুত নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে চলেছি। তার একটি নিদর্শন এই পদ্মা সেতু, যা আমাদের আবেগের, গর্বের অর্জন। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানাই দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্র দমন করে নিজেদের অর্থায়নে এই সেতু উপহার দেওয়ায়।’

শিল্পী সমিতির পক্ষে অভিনেত্রী নিপুণ বলেন, ‘পদ্মা সেতুর নির্মাণ আমাদের দেশকে বিশ্ববাসীর কাছে অনেক মর্যাদার জায়গায় নিয়ে গেছে। এটা সম্ভব হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মজবুত নেতৃত্ব ও দৃঢ়চেতা মনোভাবের জন্য। আমাদের তিনি গর্বিত করেছেন।'

নায়ক ফেরদৌস বলেন, ‘পদ্মা সেতু আমাদের গর্ব, অহংকার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাই এই অর্জন আমাদের জন্য বয়ে আনায়। তার একান্ত ইচ্ছা ও প্রচেষ্টায়ই আমরা স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান দেখতে পাচ্ছি।’

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান, বরেণ্য পরিচালক কাজী হায়াৎসহ অনেকেই।

এলএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]