যুক্তরাষ্ট্রে ‘হাওয়া’র নতুন রেকর্ড

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০১ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

গভীর সমুদ্রে চিত্রায়িত মেজবাউর রহমান সুমন পরিচালিত সিনেমা ‘হাওয়া’। দেশের দর্শকদের মুগ্ধ করে প্রথম কোনো বাংলাদেশি সিনেমা হিসেবে টানা চতুর্থ সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে চলছে ‘হাওয়া’।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আন্তর্জাতিক পরিবেশক স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো-এর প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ অলিউল্লাহ সজীব।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের শোকেইস চেইনে নিউইয়র্কের জ্যামাইকা মাল্টিপ্লেক্স সিনেমাস থিয়েটারে টানা চতুর্থ সপ্তাহেও বইছে ‘হাওয়া’। এর আগে রেকর্ড টানা তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত এ থিয়েটারে চলেছে ‘দেবী’ সিনেমা। অবশ্য ‘দেবী’ সিনেমার আয় এ থিয়েটারে দ্বিতীয় সপ্তাহেই ছাড়িয়েছে ‘হাওয়া’। ৭৩ থিয়েটারে মুক্তির পর পুরো যুক্তরাষ্ট্রের আয় এর দিক দিয়ে বাংলাদেশি সব সিনেমার রেকর্ড মাত্র চারদিনেই ভেঙেছে ‘হাওয়া’।

একই দিন থেকে কানাডায় সিনেপ্লেক্স এন্টারটেইনমেন্ট চেইনে অন্টারিও প্রভিন্স-এর টরন্টো শহরের সিনেপ্লেক্স এগলিংটন টাউন সেন্টার থিয়েটারে টানা চার সপ্তাহ চলছে ‘হাওয়া’। এর আগে এ থিয়েটারেই টানা চার সপ্তাহ চলেছিল ‘আয়নাবাজি’ ও ‘দেবী’। আর এ সপ্তাহে টরন্টোর সিনেপ্লেক্স মর্নিং সাইড সিনেমাস থিয়েটারে টানা তৃতীয় সপ্তাহ চলছে ‘হাওয়া’।

কানাডায় ‘আয়নাবাজি’ সিনেমা মুক্তি পেয়েছিল চারটি হলে, ‘দেবী’ ছয়টি হলে। আর ১৩টি থিয়েটারে মুক্তির প্রথম চারদিনেই আগের আয়ের রেকর্ড ভেঙেছে ‘হাওয়া’।

‘স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো’-এর পরিবেশনায় সান মিউজিক অ্যান্ড মোশন পিকচার্স লিমিটেড প্রযোজিত এবং ফেইসকার্ড প্রোডাকশন নির্মিত মেজবাউর রহমান সুমনের সিনেমা ‘হাওয়া’ প্রথম সপ্তাহে কানাডায় ১৩টি এবং যুক্তরাষ্ট্রে ৭৩টি মিলে মোট ৮৬ হলে মুক্তি পায়। দ্বিতীয় সপ্তাহে উত্তর আমেরিকায় ৩৫টি থিয়েটারে চলেছে হাওয়া। তৃতীয় সপ্তাহে চলেছে ১৩টি থিয়েটারে। আর সগৌরবে চতুর্থ সপ্তাহে চলছে তিনটি থিয়েটারে। সব মিলিয়ে উত্তর আমেরিকায় অবিশ্বাস্য ১৩৭ সপ্তাহ উদযাপন করছে ‘হাওয়া’।

মুক্তির প্রথম চারদিনে লেবার ডে উইকেন্ড-এ বক্সঅফিসে ঝড় তুলে বক্সঅফিস কমস্কোর-এর ইউএস টপচার্টে ২৭ নম্বরে এসেছে ‘হাওয়া’।

এমআই/এমআইএইচএস/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।