ডেঙ্গুর মশা তাড়ানোর ওষুধ বানাবেন যেভাবে

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪২ পিএম, ২৮ জুলাই ২০১৯

বর্তমানে ডেঙ্গুজ্বর মহামারি আকার ধারণ করতে যাচ্ছে। হিমশিম খাচ্ছে দেশের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। আতঙ্কে দিন-রাত পার করছে সর্বস্তরের জনগণ। এমন মুহূর্তে ডেঙ্গুজ্বরের ভাইরাস বহনকারী মশা তাড়ানোর ওষুধ বানানোর নিয়ম জানিয়েছেন ফ্রান্সে বসবাসরত বাংলাদেশি লেখক ও গবেষক রবিশঙ্কর মৈত্রী।

১৯ জুলাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে মশা তাড়ানোর ওষুধ বানানোর পদ্ধতি তুলে ধরেন তিনি। জেনে নিন ঘরে বসেই কীভাবে বানাবেন মশা তাড়ানোর ওষুধ-

মশা তাড়ানোর ক্রিম: ছোট্ট একটি কৌটা বা কাচের বয়াম নিন। একটি মোমবাতি থেকে দুইশ গ্রাম মোম গুঁড়ো করে নিয়ে কৌটায় বা কাঁচের বোতল বা বয়ামে রাখুন। এবার ৩০ মিলি নিম তেল এবং ৩০ মিলি গ্লিসারিন মিশিয়ে নিন। সঙ্গে ৫০ মিলি পানিও পাত্রে ঢেলে দিন। একটি গামলায় ১ লিটার পানি ১০ মিনিট ধরে গরম করুন। গরম পানিতে নিম তেল, মোম ও পানিভর্তি পাত্রটি বসিয়ে রাখুন। লক্ষ্য করুন, পাত্রের মধ্যে মোম গলছে কি-না। যদি না গলে তাহলে গামলার পানি আরও একবার গরম করুন।

dengu-in

> আরও পড়ুন- ডেঙ্গুজ্বর প্রতিরোধ করবেন যেভাবে

গরম পানির গামলা থেকে সাবধানে নিম, তেল, গ্লিসারিন, মোম আরও পানি মেশানো পাত্রটি তুলে এনে টেবিলে রাখুন। ৫-৭ মিনিট পর পাত্রের মধ্যে লেবুর রস ৫ ফোঁটা এবং যে কোন পারফিউম বা সুগন্ধি ৫ ফোঁটা ঢেলে দিন। এবার ছোট্ট একটি চামচ দিয়ে পাত্রের মিশ্রণটি ৫-৭ মিনিট নাড়তে থাকুন। দেখবেন মশা তাড়ানোর ক্রিম তৈরি হয়ে গেছে। একটু মন্দ গন্ধযুক্ত হলেও সামান্য একটু ক্রিম হাতে পায়ে মেখে নিন। মশা আপনার ধারেকাছেও ভিড়বে না। মশা তাড়ানোর ক্রিম ফ্রিজে অথবা অপেক্ষাকৃত কম তাপমাত্রায় রাখতে হবে। তৈরির দিন থেকে ৬ মাস পর্যন্ত এ ক্রিম ব্যবহার করা যাবে।

নিম সাবান: শুধু এডিস মশা নয়, কোন মশা-মাছিই আপনার শরীরে বসবে না। যদি আপনি নিম পাতার পেস্ট অথবা নিম সাবান গায়ে মাখেন। যতক্ষণ পর্যন্ত আপনার শরীরে নিমের গন্ধ থাকবে ততক্ষণই আপনি মশা-মাছিমুক্ত থাকবেন। এছাড়া ঘরের কোণায় কোণায় নিম পাতা ছড়িয়ে রাখুন। তাহলে মশা-মাছি ঘরে ঢুকবে না।

এসইউ/পিআর