শিশুদের জন্য ১৬ বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু উৎসব

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:২০ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে সরকার ‘মুজিব বর্ষ’ ঘোষণা করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু উৎসব। ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ও ব্রেইভের উদ্যোগে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উৎসবের কর্মসূচি চলছে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মধ্য দিয়ে এ উৎসব শুরু হয়। ক্রমান্বয়ে ফরিদগঞ্জের ১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ কর্মসূচি পালিত হবে। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়, পাইকপাড়া ইউজি উচ্চ বিদ্যালয়, রূপসা আহমদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, খাজুরিয়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, ফরিদগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, ফরিদগঞ্জ মজিদিয়া কামেল মাদ্রাসা, ফরিদগঞ্জ এআর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজ, বড়গাঁও উচ্চ বিদ্যালয়, চির্কা চাঁদপুর উচ্চ বিদ্যালয়, শহীদ জাভেদ উচ্চ বিদ্যালয়, শোল্লা স্কুল অ্যান্ড কলেজ, কালির বাজার মিজানুর রহমান স্কুল, রামপুর বাজার মাজিদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, গৃদকালিন্দিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ।

Bongo-Bondhu-Fastival

গত ১৯ সেপ্টেম্বর ফরিদগঞ্জের পাইকপাড়া ইউজি উচ্চ বিদ্যালয়ের উৎসবে শতাধিক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত হয়। উৎসব উপলক্ষে রচনা, স্বরচিত কবিতা পাঠ, কুইজ, বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন আয়োজন করা হয়।

উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান। তিনি বলেন, ‘মুজিব বর্ষ উপলক্ষে এমন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ আমরা হাতে নিয়েছি। যাতে শিক্ষার্থীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গুরুত্ব সহকারে জানতে পারে। আরও জানতে পারবে দেশ স্বাধীন হওয়ার পেছনে তার অবদানের কথা।’

Bongo-Bondhu-Fastival

তিনি বলেন, ‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম বিষয়ে শিক্ষার্থীদের উদ্বুদ্ধ করতে আমরা বঙ্গবন্ধু উৎসবের আয়োজন করেছি। সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু যে স্বপ্ন দেখিয়েছেন; সে স্বপ্ন বাস্তাবায়নে আমাদের আগামী প্রজন্মকে নিয়েই দৃঢ়ভাবে কাজ করতে হবে।’

অনুষ্ঠানের সদস্য সচিব রিফাত কান্তি সেন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু উৎসবের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুকে অনুধাবন করবে। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে তাদের অনুভব থেকে লিখবে। তাদের লেখাগুলো প্রকাশিত হবে আগামী বছর বঙ্গবন্ধু উৎসব উপলক্ষে প্রকাশিতব্য পুস্তিকায়।’

ব্রেইভ স্কুল টিম ফরিদগঞ্জ ইউনিটের প্রধান সমন্বয়কারী মরিয়ম আক্তার বলেন, ‘আয়োজনের সাথে থেকে সহপাঠীদের মাঝে বঙ্গবন্ধুকে ছড়িয়ে দিতে পেরে আমরা বেশ আনন্দিত। ফরিদগঞ্জের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ আয়োজন সম্পন্ন করে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে চাই।’

Bongo-Bondhu-Fastival

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফরিদগঞ্জের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষকমণ্ডলী, ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য ও ব্রেইভ টিমের সদস্যবৃন্দ। ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ ও বি-রিলেটেড টু অডিও ভিজ্যুয়াল এডুকেশনের (ব্রেইভ) যৌথ উদ্যোগে এ উৎসব পালিত হচ্ছে।

উৎসবে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ, ৭ মার্চের ভাষণ, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন, বঙ্গবন্ধুর কৃষি উন্নয়ন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের অর্থনীতি, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও বাংলাদেশের উন্নয়ন শীর্ষক অডিও ভিজ্যুয়াল প্রদর্শন করা হয়। পর্যায়ক্রমে ফরিদগঞ্জের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ আয়োজন চলবে।

এসইউ/পিআর