মা দিবসের প্রতিষ্ঠাতাই ছিলেন এর বিপক্ষে!

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:১০ পিএম, ০৯ মে ২০২১

প্রতিবছর মে মাসের দ্বিতীয় রবিবার বিশ্বব্যাপী পালিত হয় মা দিবস। মায়ের প্রতি সম্মান ও ভালোবাসা প্রদর্শনের দিন এটি। তবে কখনো কি ভেবে দেখেছেন, এই দিনটি কীভাবে শুরু হয়েছিল? আর এ দিবসের পেছনের গল্পটাই বা কী? কে এই দিবসের প্রতিষ্ঠাতা?

১৯০৮ সালে আন্না জার্ভিস ‘মাদার্স ডে’ প্রতিষ্ঠা করেন। নিঃসন্তান হয়েও মায়েদের জন্য একটি বিশেষ দিন প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। আন্না জারভিসের নিজের কোনো সন্তান ছিল না। তবে বিশ্বের সব মায়ের ত্যাগ-তিতিক্ষা ও অবদানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে একটি উপলক্ষ হিসেবে মা দিবস চালু হয় তার নেতৃত্বেই।

jagonews24

১৯০৮ সালের মে মাস। আন্না পশ্চিম ভার্জিনিয়ার একটি ডিপার্টমেন্ট স্টোরে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রথম মা দিবস অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। আন্না এরপরে সংবাদপত্র এবং রাজনীতিবিদদের কাছে মাতৃ দিবসকে সরকারি ছুটি হিসেবে গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে চিঠি লিখতে শুরু করেছিলেন।

১৯১২ সালের মধ্যেই অনেক গীর্জা, শহর ও রাজ্যগুলোতে মা দিবস বেশ ঘটা করে উদযাপিত হতে থাকে। জার্ভিস ‘মাদার্স ডে’র জন্য আন্তর্জাতিক সমিতি প্রতিষ্ঠা করেন। মা দিবস প্রতিষ্ঠার জন্য কঠোর পরিশ্রম করেন আন্না। এরপর ১৯১৪ সালে রাষ্ট্রপতি উড্রো উইলসন মে মাসের দ্বিতীয় রবিবার আনুষ্ঠানিকভাবে ‘মাদার্স ডে’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত একটি বিলে স্বাক্ষর করেছিলেন।

jagonews24

মাকে সময় দেওয়ার পাশাপাশি তাদেরকে সম্মান জানোর উদ্দেশ্যে মা দিবস প্রতিষ্ঠা করেন আন্না। ছেলে-মেয়ে সবাই তাদের মায়ের প্রতি আরও শ্রদ্ধাশীল হবে এ আশায় বুক বেঁধেছিলেন নিঃসন্তান আন্না। তবে শিগগিরই তার হতাশা বেড়ে গেল। কারণ মা দিবস উদযাপনে অনেক জাকজমকতা প্রদর্শন হতে থাকে। এ উপলক্ষে কার্ড, ফুল, ক্যান্ডি এবং অন্যান্য উপহার কেনার এবং দেওয়ার রীতিতে পরিণত হতে থাকে দিবসটি।

মাদার্স ডে’কে পুঁজি করে ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন জিনিসপত্র বিক্রি করা শুরু করেন। মিষ্টির দোকান থেকে শুরু করে ফুল, ক্যান্ডি সব জায়গাতেই রমরমা ব্যবসা শুরু হয়। এর বিপক্ষে ছিলেন আন্না। মায়ের প্রতি ভালোবাসার নিদর্শন কি শুধুই তাকে উপহার দেওয়া! এ বিষয়টি আন্না মানতে পারেননি কখনোই।

jagonews24

‘মাদার্স ডে’ নামটি ব্যবহার করে যারা ব্যবসা করছিলেন, আন্না একে একে তাদের বিরুদ্ধে মামলা-মোকদ্দমা করেন। এমনকি ১৯২৫ সালে আমেরিকান ওয়ার মাদার্স নামক একটি সংস্থা, মাদার্স ডে উপলক্ষে অর্থ সংগ্রহ করতে থাকে। যা তারা মা দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ব্যয় করত।

আন্না এর ঘোর বিরোধিতা শুরু করেন। এমনকি ফার্স্ট লেডি এলেনর রুজভেল্টকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি। এজন্য অবশ্য তিনি গ্রেফতারও হয়েছিলেন। ১৯৪০ সালে আন্না চিঠিতে মা দিবসে সরকারি ছুটি বাতিলের অনুরোধ জানান সরকারকে।

jagonews24

তবে সরকার কর্তৃক এবার তার চেষ্টা আর সফল হয়নি। তার প্রতিষ্ঠিত দিনটিতে আজো সারাবিশ্বে মা দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে। আনা জার্ভিসের জন্ম পহেলা মে ১৮৬৪। মনে শত কষ্ট নিয়েই নিয়েই ১৯৪৮ সালে ফিলাডেলফিয়ার মার্শাল স্কয়ার সানিটারিয়ামে মৃত্যুবরণ করেন আন্না জার্ভিস।

জেএমএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]