নির্বাচনী স্লোগানে দিনরাত মুখরিত বারডেম হাসপাতাল চত্বর

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:১২ এএম, ২২ নভেম্বর ২০১৭
নির্বাচনী স্লোগানে দিনরাত মুখরিত বারডেম হাসপাতাল চত্বর

‘মার্কাটি কী ঘড়ি, আরও জোরে ঘড়ি, সবাই বলো ঘড়ি, জিতেই যাবে ঘড়ি।’ মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ৯টায় রাজধানীর শাহবাগ বারডেম হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনের চত্বরে অর্ধশতাধিক নারী ও পুরুষের কণ্ঠে এমন স্লোগান ভেসে আসছিল।

হাসপাতাল-ঘেঁষা প্রধান সড়কের বাস, মাইক্রোবাস ও মোটরসাইকেল আরোহীরা উঁকি মেরে হাসপাতালের ভেতরে এমন জটলা কেন তা বুঝতে চেষ্টা করছিলেন। পাশ থেকে একজন চেচিয়ে উঠে বললেন, দেখেন তো চিকিৎসাধীন অবস্থায় কোনো রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে হৈচৈ মারামারি লাগলো কি না।

কৌতূহলবশত এ প্রতিবেদক সামনে এগিয়ে গিয়ে কথা বলে জানতে পারেন আগামী শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) বারডেম হাসপাতালের এমপ্লয়িজ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব ডায়াবেটিকের অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন উপলক্ষে শেষ মুহূর্তের প্রচার-প্রচারণা চলছে। চিকিৎসাসেবাকে ব্যাহত না করে কর্মচারীরা দিনরাত প্রচার চালিয়ে বারডেম হাসপাতালের চৌহদ্দি মুখরিত করে তুলছেন।

bb

উপস্থিত কর্মচারী, নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে জানা গেছে, এ প্রতি দুই বছর পর পর এ অ্যাসোসিয়েশনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ বছর মোট ভোটার সংখ্যা এক হাজার ৫১৭ জন। নির্বাচনে মোট তিনটি প্যানেল- খেলাফত-শরীফ-শামসু (টেলিভিশন), এমরান-শাসমুদ্দিন (চেয়ার) ও ডা. আশীষ চক্রবর্তী-এনামুল বিশ্বাস (ঘড়ি) প্রতীক নিয়ে অংশগ্রহণ করবেন। সমাজসেবা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক রুকুনুল হক প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছেন। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ৩৩টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন একাধিক প্রার্থী।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে এমরান-শামসুদ্দিন পরিষদের প্রার্থী শামসুদ্দিন বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বারডেম হাসপাতালে উৎসবমুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। কর্মচারী ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের মধ্যে যারা নির্বাচন করছেন তারা সকাল থেকে রাত পর্যন্ত গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। হাসপাতাল মহাপরিচালক অধ্যাপক নাজমুন নাহারের নির্দেশনা মেনে পোস্টার ও বিলবোর্ড লাগানো থেকে বিরত থাকছেন। তাছাড়া নির্বাচনী প্রচারণায় যেন হাসপাতালের চিকিৎসা পরিবেশ ব্যাহত না হয় সেই চেষ্টা চালাচ্ছেন।

মঙ্গলবার রাতে সরেজমিনে দেখা গেছে, প্রার্থীরা ঘুরে ঘুরে ভোটারদের সঙ্গে করমর্দন করে ভোট চেয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন। হাসপাতালের আশেপাশের চা-সিগারেট ও খাবারের দোকানগুলোতে প্রার্থী ও প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণায় অংশগ্রহণ করা কর্মচারীরা খোশগল্পে ব্যস্ত। কে কাকে ভোট দেবেন আর কে জয়লাভ করবে তা নিয়ে হাসিঠাট্টা ও বাদানুবাদ চলছে।

এমইউ/বিএ