সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতাল নির্মাণকাজ পরিদর্শনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৩১ এএম, ২২ মার্চ ২০১৯

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতালের নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শনে গেলে হাসপাতাল প্রকল্পের কার্যক্রমের অগ্রগতি সম্পর্কে মন্ত্রীকে অবহিত করেন প্রকল্পের পরিচালক অধ্যাপক ডা. জুলফিকার রহমান খান।

নির্মাণকাজের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, বিএসএমএমইউ সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতালের কার্যক্রম সুন্দরভাবে এগিয়ে চলছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই এই হাসপাতালের নির্মাণকাজ শেষ হবে বলে আশা করা যায়।

এ সময় বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক সৈয়দ মোজাফফর আহমেদ, পরিচালক (হাসপাতাল) বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ কে মাহবুবুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ডা. সাহানা আখতার রহমান চিকিৎসাশিক্ষা, চিকিৎসাসেবা, গবেষণা ও বিভিন্ন প্রকল্পের কার্যক্রম সম্পর্কে মন্ত্রীকে অবহিত করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক বিষয়ে মন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেন।

মন্ত্রীকে জানানো হয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শয্যা সংখ্যা ১৯০৪টি এবং এর মধ্যে বিনাভাড়ার বিছানা ৭৫৮টি, কেবিনের সংখ্যা ১২৪টি, আইসিইউ, এনআইসিইউ ও পিআইসিসিইউয়ের মোট সংখ্যা ৯১টি।

২০১৮ সালে নতুন ও পুরাতন মিলিয়ে মোট ২০ লাখ ৬০ হাজার ১৫৯ জন রোগী সেবা নিয়েছেন। এরমধ্যে বৈকালিক স্পেশালাইজড আউটডোরে নতুন ও পুরাতন মিলিয়ে দুই লাখ ৩৯ হাজার ৫৮ জন রোগী সেবা নিয়েছেন। প্রতিদিন নতুন পাঁচ হাজার ১৫ জন এবং পুরাতন এক হাজার ৯৯২ জন রোগীসহ মোট সাত হাজার সাতজন রোগী সেবা নিয়েছেন।

২০১৮ সালে মোট ৩৮ হাজার ৭৫৬ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। শুধুমাত্র বহির্বিভাগ থেকেই ভর্তি হয়েছেন ৩০ হাজার ৭০৪ জন। নিউরোসার্জারি, অর্থোপেডিক্স, কার্ডিওলজিসহ জরুরি বিভাগ থেকে ভর্তি হয়েছেন আট হাজার ৫২ জন।

গত বছর বড়ছোট মিলিয়ে ৪৫ হাজার ৬২৮ জনের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। এরমধ্যে মেজর অস্ত্রোপচার ১৪ হাজার ৯৭৮ জন রোগীর এবং মাইনর অস্ত্রোপচার হয়েছে ৩০ হাজার ৬৫০ জনের।

এমইউ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :