নানা আয়োজনে স্তন ক্যান্সার সচেতনতা দিবস পালিত

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:১৪ এএম, ১১ অক্টোবর ২০১৯

সারাদেশে বিভিন্ন সংগঠনের আয়োজনে পালিত হলো স্তন ক্যান্সার সচেতনতা দিবস। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ও স্ক্রিনিং: কেন চাই? কীভাবে চাই?’ শিরোনামে এক গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ১২টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মোর্চা বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ফোরাম ও ৬৮টি রোটারি ক্লাব যৌথভাবে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে। পুরো অক্টোবর মাসব্যাপী সচেতনতা ও স্ক্রিনিং প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছে এ দুই মোর্চা।

সূচনা বক্তব্যে ফোরামের প্রধান সমন্বয়কারী ও জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের ক্যান্সার ইপিডেমিওলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ডা. ম. হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন জানান, আন্তর্জাতিক সংস্থা আইএআরসির অনুমিত হিসাব অনুযায়ী বাংলাদেশে প্রতিবছর ১২ হাজার ৭৬৪ জন নারী নতুন করে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। মারা যান ছয় হাজার ৮৪৪ জন। নারী ক্যান্সার রোগীদের মধ্যে ১৯ শতাংশ স্তন ক্যান্সারে ভোগেন। নারী-পুরুষ মিলে সাড়ে আট শতাংশ।

সভায় বক্তারা বলেন, স্তন ক্যান্সার নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক জনসচেতনতা ও প্রাথমিক অবস্থায় ক্যান্সার নির্ণয়ের ওপর জোর দিতে হবে। সরকারি ও বেসরকারি নানা বিভাগ, সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান জনসচেতনতার বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে। কিন্তু সঠিক তথ্য সবার বোঝার উপযোগী করে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার ওপর গুরুত্ব দিতে হবে বলে সবাই অভিমত ব্যক্ত করেন।

সভায় প্যানেল আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট স্বাস্থ্যবিষয়ক লেখক ও বারডেমের সাবেক পরিচালক অধ্যাপক শুভাগত চৌধুরী, রোটারি ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩২৮১ এর প্রাক্তন গভর্নর কে এম জয়নাল আবেদিন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাবেক উপদেষ্টা অধ্যাপক মোজাহেরুল হক, গাইনি অনকোলজির অধ্যাপক ডা. সাবেরা খাতুন, হিস্টোপ্যাথলজির অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা, রেডিওথেরাপির অধ্যাপক স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় ও অধ্যাপক খোরশেদ আলম, সার্জারির অধ্যাপক ডা. আলি নাফিসা, ক্যান্সার সারভাইভার ও অপরাজিতার চেয়ারপারসন তাহমিনা গাফফার, ক্যান্সার প্রতিরোধ ও গবেষণা কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক মোসাররত র্সৌরভ।

সভায় বক্তারা ক্যান্সার প্রতিরোধ ও স্ক্রিনিং সেবা বিকেন্দ্রীকরণের ওপর জোর দেন। সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থা ও সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের প্রতি জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ক্যান্সার চিকিৎসাকেন্দ্র প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানানো হয়। সমাজভিত্তিক ক্যান্সার সেবা চালু ক্রার পক্ষে মত দেন আলোচকরা।

সভায় জানানো হয়, শুক্রবার (১১ অক্টোবর) থেকে চার দিনব্যাপী গোলাপি শোভাযাত্রা পরিচালিত হবে ঢাকায়। সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, গাইবান্ধা, রংপুর, দিনাজপুর, জয়পুরহাট, নওগাঁ, রাজশাহী, পাবনা, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, যশোর, খুলনা, বাগেরহাট, গোপাল্গঞ্জ, ফরিদপুর, রাজবাড়ি ও মানিকগঞ্জ জেলায় প্রায় ৪০টি আলোচনাসভা, পথসভা, আয়োজন ও প্রয়োজনীয় তথ্যসমৃদ্ধ লিফলেট বিতরণ করার এক ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে।

এমইউ/বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]