বিনামূল্যে ডায়াবেটিস নির্ণয়, ভিড় বেশি তরুণদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:২৯ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস আজ। এ উপলক্ষে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে বিনামূল্যে ডায়াবেটিস নির্ণয়ের ব্যবস্থা করেছে বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি। পরীক্ষা করতে আসাদের মধ্যে তরুণ-তরুণীর সংখ্যা বেশি।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চলবে ১১টা পর্যন্ত।

সরেজমিনে শাহবাগ গিয়ে দেখা যায়, বিনামূল্যে ডায়াবেটিস নির্ণয়ের লাইনে কমবেশি সব সময় ২০ থেকে ২৫ জন লাইনে ছিলেন। একটি বুথ করে সেখানে ৪ জন পুরুষ ও ৩ জন নারী প্রতিনিধি আছেন। তাদের একজন ফরম দিচ্ছেন, আরেকজন পূরণ করা ফরম সংগ্রহ করে একে একে সিরিয়াল অনুযায়ী ব্লাড প্রেসার পরিমাপের জন্য ডাকছেন। প্রেসার মাপার পর ডিজিটাল মেশিনে তাদের ডায়াবেটিস নির্ণয় করা হচ্ছে।

ডায়াবেটিস নির্ণয়ের পর সেই ফরমে ডায়াবেটিক সমিতির দুজন প্রতিনিধি ব্লাড সুগারের মাত্রা লিখে দিচ্ছেন এবং তাদের ডায়াবেটিস আছে কি নেই তা বলে দিচ্ছেন। অনেকের আগে ডায়াবেটিস না থাকা সত্ত্বেও ব্লাড সুগার বেশি দেখাচ্ছে। তাদের বারডেম হাসপাতালে গিয়ে আবারও পরীক্ষা করার পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

diabetics

বুথের প্রতিনিধি মো. আল-মামুন শাহ জাগো নিউজকে বলেন, সকাল ৮টা থেকে নির্ণয় শুরুর পর থেকেই উপ চেপড়া ভিড়। একজনের টেস্ট করে রিপোর্ট দিতে প্রায় ৪-৫ মিনিট লাগছে। সব বয়সীরাই আসছেন ডায়াবেটিস পরীক্ষা করাতে। সাড়ে ৯টা পর্যন্ত প্রায় ৯০ থেকে ১০০ জন ডায়াবেটিস নির্ণয় করিয়েছেন। তাদের মধ্যে তরুণ-তরুণীর সংখ্যা বেশি।

বুথে পাওয়া গেল ইমতিয়াজ সানি নামের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থীকে। পরীক্ষা করে দেখা গেল তার ব্লাড সুগারের পরিমাণ ৬.৩। প্রতিনিধিরা তাকে বললেন, তার ডায়াবেটিস নেই।

সানি জাগো নিউজকে বলেন, আমার মা ও বাবা দুজনেরই ১৫ বছর থেকে ডায়াবেটিস রয়েছে। আমার তেমন কোন লক্ষণ না থাকলেও কৌতূহলবশত আমি পরীক্ষা করিয়েছি। নিশ্চিন্ত হলাম।

এছাড়া বুথে কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, ইডেন কলেজ ও গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের শিক্ষার্থীদেরও পরীক্ষা করাতে দেখা যায়।

বুথের শৃঙ্খলা রক্ষায় সেখানে শাহবাগ থানার তিনজন পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নির্ণয়ের পাশাপাশি বুথে ডায়াবেটিস মাপার ডিজিটাল মেশিনও বিক্রি হচ্ছে। এখানে সোনারগাঁও হেলথ কেয়ার প্রাইভেট লিমিটেডের কন্টোউর টিএস এবং কন্টোউর প্লাস নামে দুটি মেশিন পাওয়া যাচ্ছে।

diabetics

প্রতিষ্ঠানটির একজন বিক্রয়কর্মীও রয়েছেন এখানে। তিনি জানান, এই দুটি মেশিন বাজারে ২২০০ টাকায় বিক্রি হয়। আজ ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষে মাত্র ১১০০ টাকায় এগুলো বিক্রি করা হচ্ছে। বেলা ১১টা পর্যন্ত বিক্রির কার্যক্রম চলবে।

প্রতি বছরের মতো আজ ১৪ নভেম্বর বাংলাদেশসহ সারাদেশে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালন করা হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেবে, বিশ্বে ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বর্তমানে ৪২৫ মিলিয়ন, অর্থাৎ ৪২ কোটিরও বেশি। বিশ্বে প্রতি বছর ডায়াবেটিসের কারণে ১০ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। বর্তমানে সারাবিশ্বে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা বিবেচনায় বাংলাদেশ ১০ম।

বাংলাদেশে ডায়াবেটিস রোগী রয়েছে প্রায় ৯০ লাখ, বছরে বাড়ছে আরও এক লাখ রোগী। ডায়াবেটিস প্রতিরোধে এখনই কার্যকর উদ্যোগ না নিলে বিশ্বে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে ৫৫ কোটি ছাড়িয়ে যাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

এবার বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতিসহ (বাডাস) বিভিন্ন সংগঠন দেশব্যাপী ডায়াবেটিস সম্পর্কিত সচেতনতামূলক পোস্টার, লিফলেট বিতরণ ছাড়াও শোভাযাত্রার আয়োজন করেছে।

এআর/এমএসএইচ/জেআইএম