সাধারণ জরুরি বিভাগ দ্রুত চালুর নির্দেশ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:১৯ পিএম, ৩০ মে ২০২১

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্ অ্যান্ড গাইনি, কার্ডিওলজি, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগসহ বিদ্যমান কয়েকটি বিভাগের জরুরি চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম জোরদার করার নির্দেশ দিয়েছেন।

একই সঙ্গে তিনি এসব বিভাগগুলোতে সার্বক্ষণিক চিকিৎসকদের উপস্থিতিসহ ২৪ ঘণ্টা জরুরি সেবা নিশ্চিত করা এবং দ্রুত সাধারণ জরুরি বিভাগ চালুর নির্দেশ দিয়েছেন। বিশ্বমানের জরুরি সেবা নিশ্চিত করতে এ সম্পর্কিত সংশ্লিষ্ট কমিটিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জরুরি বিভাগ চালুর লক্ষ্যে কাজ করার নির্দেশ দেন।

রোববার (৩০ মে ) শহীদ ডা. মিল্টন হলে সকল ডিন ও সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় চেয়ারম্যানদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত রোগীদের জরুরি সেবা সম্পর্কিত এক গুরুত্বপূর্ণ সভায় তিনি এ নির্দেশ দেন।

সভায় উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশাররফ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, ডেন্টাল অনুষদের অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়ল, বেসিক সায়েন্স অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. খন্দকার মানজারে শামীম, মেডিসিন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মাসুদা বেগম, সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমেদ, শিশু অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. শাহীন আকতার, নার্সিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন, মেডিকেল টেকনোলজি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. দেবব্রত বনিক, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নানসহ বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ তার কার্যালয়ে প্রশাসনিক মিটিং ছাড়াও শহীদ ডা. মিল্টন হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনকোলজি বিভাগ, রিপ্রোডাকটিভ এন্ডোক্রাইনোলজি অ্যান্ড ইনফার্টিলিটি বিভাগ এবং মেডিকেল অফিসারদের সঙ্গে তিনটি আলাদা সভায় অংশগ্রহণ করে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন এবং উক্ত বিভাগ দুটির উন্নয়নসহ সার্বিক কার্যক্রম জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

এমইউ/এআরএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]