‘কণ্ঠ রেকর্ড করা গেলে সাগর-রুনি হত্যার তদন্ত ৮০ শতাংশ হয়ে যেত’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:১২ পিএম, ১৬ এপ্রিল ২০২২

সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ডের সময় যদি অপরাধীর কণ্ঠ রেকর্ড করা থাকতো তবে তদন্ত ৮০ ভাগ হয়ে যেত বলে মন্তব্য করেছেন কুমিল্লা-৭ আসনের সংসদ সদস্য ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত।

তিনি বলেছেন, একজন বাচ্চার ভয়েস কখনো অ্যাডাল্টের মতো না। একজন যুবক ছেলে ও একজন যুবতী মেয়ের গলার স্বর এক রকম নয়। একজন দাদি ও একজন দাদুর গলার স্বর এক রকম নয়। অর্থাৎ কারও ভয়েস কারও মতো নয়।

শনিবার (১৬ এপ্রিল) সকালে বিশ্ব কণ্ঠ দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) বি ব্লকের সামনে শোভাযাত্রা ও শহীদ ডা. মিলন হলে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে নাক কান গলা বিভাগ। অনুষ্ঠানে আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত বলেন, প্রতিটি দিবসের কাজ হলো সচেতন করা। প্রথমে পেশাজীবীদের সচেতন করা। মোবাইলে যত কম কথা বলা যায়, ততই ভালো। অনুষ্ঠানে ২০ মিনিটের বেশি বক্তৃতা করা ভালো নয়। মোবাইলে ৩০ সেকেন্ডের বেশি কথা বলা ঠিক নয়।

এ সময় গলা সুস্থ রাখতে নানা রকম পরামর্শ দেন বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. ছয়েফ উদ্দিন আহমদ, নাক কান গলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. আজাহারুল ইসলাম, কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট প্রকল্পের পরিচালক ও সিন্ডিকেট মেম্বার অধ্যাপক ডা. এইচএম জহুরুল হক সাচ্চু, অধ্যাপক ডা. বেলায়েত হোসেন সিদ্দিকী, অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান তরফদার, আবৃত্তি শিল্পী অধ্যাপক ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ।

এএএম/এমএইচআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]