বিএসএমএমইউয়ে প্রথম বুক কাটা ছাড়াই অ্যাওরটিক ভালভ প্রতিস্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২২ পিএম, ১৬ আগস্ট ২০২২
বুক কাটা ছাড়াই অ্যাওরটিক ভালভ প্রতিস্থাপনকারী চিকিৎসক দল

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) অজ্ঞান না করে বুক কাটা ছাড়াই প্রথমবারের মতো অ্যাওরটিক ভালভ (TAVI) সফলভাবে প্রতিস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন একদল চিকিৎসক।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) ভালভ প্রতিস্থাপনে নেতৃত্বদানকারী চিকিৎসক ও বিএসএমএমইউয়ের ইন্টারভেনশনাল হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এস এম মোস্তফা জামান জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করছেন।

জানা গেছে,মঙ্গলবার অধ্যাপক ডা. এস এম মোস্তফা জামানের নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক ৮০ বছরের এক বৃদ্ধের বুকে ভালভটি প্রতিস্থাপন করেন। ওই বৃদ্ধ বর্তমানে বিএসএমএমইউয়ের করোনারি ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি আছেন।

ইন্টারভেনশনাল কার্ডিওলজির এ সফলতাকে চিকিৎসাখাতের নতুন মাইলফলক হিসেবে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে, প্রথমবারের মতো অ্যাওরটিক ভালভ সফলভাবে প্রতিস্থাপন করায় অধ্যাপক ডা. এস এম মোস্তফা জামানের দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ।

উপাচার্য বলেন, বর্তমান প্রশাসন দায়িত্ব নেওয়ার পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা কার্যক্রম বেড়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে চিকিৎসাসেবার মান। বর্তমান প্রশাসন বিএসএমএমইউয়ের স্বাস্থ্যশিক্ষা, সেবা ও গবেষণায় সর্বাধুনিক সব প্রযুক্তি যুক্ত করতে বদ্ধপরিকর।

অ্যাওরটিক ভালভ প্রতিস্থাপন সম্পর্কে অধ্যাপক ডা. এসএম মোস্তফা জামান বলেন, আজ ছুরি-কাঁচি দিয়ে কাটাকাটি ছাড়াই ৮০ বছরের এক বৃদ্ধের হার্টে অ্যাওরটিক ভালভ সফলভাবে প্রতিস্থাপন করতে পেরেছি। তার জীবন বাঁচাতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে অনেকেরই এ চিকিৎসা নেওয়ার সক্ষমতা নেই। যারা ধনী, তাদের অনেকেই দেশের বাইরে গিয়ে এ চিকিৎসা নিয়ে আসেন।

ডা. মোস্তফা জামান আরও বলেন, আমি বিশ্বের অত্যাধুনিক ও ব্যয়বহুল এ চিকিৎসা পদ্ধতি দেশে প্রতিষ্ঠা করতে চাই। সরকার যদি দেশের অসচ্ছল জনগণের জন্য এ সেবাকে সহজলভ্য করার ব্যবস্থা করে তাহলে আমি এটিকে অনেক দূরে নিয়ে যেতে পারব। পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের চিকিৎসকদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবো।

এএএম/এসএএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।