আসাম বাঙালিদের তাড়ালে পশ্চিমবঙ্গ আশ্রয় দেবে : মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:২৭ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৯:৪৫ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৮

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জলপাইগুড়ির আলিপুরদুয়ারের কুমারগ্রামের কাছেই অাসাম প্রদেশ। মঙ্গলবার এ সীমানা এলাকা থেকেই অাসাম-ইস্যুতে ফের সুর চড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, অাসাম থেকে কাউকে তাড়িয়ে দিলে সরকার তার পাশে আছে; রাজ্য আশ্রয় দেবে।

তার অভিযোগ, অাসাম থেকে অনেক প্রকৃত নাগরিককে তালিকা থেকে বাদ দিয়ে নিপীড়নের চেষ্টা হচ্ছে। বাংলার কারো শরীরে লাগলে আমার শরীরেও লাগে। অাসাম থেকে অত্যাচারিত হয়ে কেউ এলে তাড়াবেন না; ভালোবেসে আশ্রয় দেবেন।

ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) শাসিত অাসামে ‘জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর’ প্রথম তালিকা থেকে সত্তর শতাংশ বাঙালির নাম বাতিল করা হয়েছে। বাঙালি অধ্যুষিত ‘বরাক উপত্যকা’ থেকেই নথিভুক্তির হার সবচেয়ে কম। এ নিয়ে সম্প্রতি বীরভূমের সভা থেকে বিজেপির সমালোচনা করেন মমতা।

তিনি বলেন, অাসাম ও কেন্দ্রের বিজেপির সরকারের কিছু লোকজন নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য এটা করছে। আগুন নিয়ে খেলবেন না…ডিভাইড-রুল করবেন না…মানুষের গায়ে হাত পড়লে চুপ করে থাকব না।

এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে বিজেপি শাসিত অাসামের পুলিশ। মঙ্গলবার ফের একই ইস্যুতে সুর চড়ালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। বিজেপি অবশ্য প্রথম থেকেই দাবি করছে, অাসামে নাগরিক তালিকা তৈরিতে কোনো ভেদাভেদ করা হয়নি।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, মমতা ইচ্ছে করে বিভ্রান্তি তৈরির চেষ্টা করছেন। অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের নাম বাদ দেয়া হচ্ছে। এতে বৈধ নাগরিকদের আতঙ্কের কিছু নেই। বিজেপির সমালোচনা না করে মমতার উচিত একই রকম তালিকা বাংলায় করা। এবিপি আনন্দ।

এসআইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :