নেশার টাকা চেয়ে পাননি, বন্ধুকে কুচি কুচি করে খুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪৭ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০১৯

সেলুনের বাথরুমে পানি ঠিক ভাবে গড়াচ্ছিল না। ডেকে পাঠানো হয় এক কলের মিস্ত্রিকে। কিন্তু কল মিস্ত্রি এসে যা দেখলেন, তাতে সকলের চক্ষু চড়কগাছ।

ঘটনাটি ফ্রান্সের ইসোয়ার শহরের। সেলুনের ড্রেনে এক এক করে মাংসপিন্ড নজরে আসে ওই মিস্ত্রির। আর তার পরই পুলিশকে ডাকা হয়। পুলিশ এসে সেলুনের উপরতলায় গিয়ে দেখেন দেয়ালময় রক্ত। বাড়ির পর্দাতেও রক্ত মাখামাখি। ফ্রিজের ভেতর ব্রেন আর লিভার দেখতে পাওয়ার পর পুলিশের চোখ কপালে ওঠে। বাড়ির মালিককে সন্দেহ হয় পুলিশের।

সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে ইতিমধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রসিকিউটরের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, নেশা করবেন বলে বন্ধুর কাছে টাকা চেয়েছিলেন অভিযুক্ত ব্যক্তি। কিন্তু তা দিতে রাজি হননি তার বন্ধু। রেগে গিয়ে তাকে খুন করেন অভিযুক্ত।

গত সপ্তাহে ফ্রান্সের ইসোয়ার শহরে এ ঘটনা ঘটে। ইসোয়ার শহরের এক সেলুনের কাস্টমার বাথরুমে গিয়ে দেখেন পানির লাইন দিয়ে পানি যাচ্ছে না। পরে এক কল মিস্ত্রিকে ডেকে পাঠানো হয়। কলের মিস্ত্রি এসে দরজা খুলে কিছু মাংসের টুকরো দেখতে পান। ফরেন্সিক টেস্টে পরে দেখা যায়, এই মাংসপিন্ডগুলো মৃত ওই ব্যক্তির।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখা যায়, রক্তমাখা তিনটি ব্যাগ ভর্তি করে এক ব্যক্তি ডাস্টবিনে ফেলছেন। ঠিক তার পরের দিনই ইসোয়ার ফেরার পথে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ বলছে, ৩৬ বছর বয়সী অভিযুক্ত আসলে মাদকাসক্ত এবং বেকার।

সেন্ট্রাল ক্লেরমোন্ট-ফেরান্ড অঞ্চলের পাবলিক প্রসিকিউটর এরিক মাইলাউডের কথায়, ‘বুধবার অভিযুক্ত তার ৪৫ বছর বয়সী বন্ধুকে খুন করার কথা স্বীকার করেছেন।’ নেশা করার জন্য বন্ধু টাকা দিতে চাননি বলেই তাকে খুন করেছেন বলে পুলিশের কাছে জানিয়েছে অভিযুক্ত।

অভিযুক্ত এবং মৃত কারও পরিচয় জানায়নি পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে, মৃত ব্যক্তিও মাদকাসক্ত ছিলেন। খুব সম্প্রতি উত্তরাধিকার সূত্রে বিপুল অর্থও পেয়েছিলেন তিনি। আনন্দবাজার।

এসআইএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :