হীরার লোভে ১ হাজার কেজি ওজনের মূর্তি চুরি, কিন্তু...

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৬ পিএম, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

হীরার লোভে শিব মন্দির থেকে ১ হাজার কেজি ওজনের ‘নন্দী’ পাথরের মূর্তি চুরি করে নিয়ে গেছে এক দল চোর। এই শিব মন্দিরটি ছিল প্রায় ৪০০ বছরের পুরনো। ঘটনাটি ঘটেছে অন্ধ্রপ্রদেশের পূর্ব গোদাবরী জেলার রামচন্দ্রপুরমের অগস্তেশ্বর স্বামী মন্দিরে।

মন্দিরের সামনেই ছিল গ্রানাইট পাথরের তৈরি ষাঁড়ের মূর্তি। গুজব ছড়িয়েছিল যে, মন্দিরে প্রচুর হীরে লুকিয়ে রাখা হয়েছে। আর ওই হিরা রয়েছে ‘নন্দী’র মূর্তির ভেতরে।

খবরটা পৌঁছে যায় চোরদের কাছে। ২৪ জানুয়ারি গভীর রাতে মন্দিরে ‘অপারেশন’ চালায় তারা। প্রাথমিকভাবে পুলিশ মনে করছে, চোরের দলে প্রায় ২০-২৫ ছিল। মন্দিরে সিসিটিভি ক্যামেরা না থাকায় বাড়তি সুবিধা পেয়ে যায় চোর চক্র। হীরার লোভে ষাঁড়ের পুরো মূর্তিটাকেই মন্দির থেকে তুলে নিয়ে যায় তারা। একটি খালের ধারে নিয়ে গিয়ে সেটা ভাঙা শুরু করে। কিন্তু কোথায় হীরা! মূর্তির ভেতরে একটা হীরের চিহ্ন পর্যন্ত পায়নি তারা। শেষমেশ হতাশ হয়েই মূর্তিটিকে ফেলে চলে যায় চোর চক্র।

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরপরই শোরগোল পড়ে যায়। খালের ধারে ষাঁড়ের ভাঙা মূর্তি পড়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের। সঙ্গে সঙ্গে তারা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ তদন্ত শুরু করে।

রামচন্দ্রপুরমের সার্কেল ইনস্পেক্টর শিব গণেশ জানান, ঘটনার পর থেকেই চোরদের ধরার জন্য পুরোদমে তল্লাশি শুরু হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে বেশ কিছু সূত্র পাওয়া যায়।

সেই সূত্র ধরেই শনিবার ১৫ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে আরও বেশি লোক এই চুরির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বলেই অনুমান পুলিশের।

এই চুরির ঘটনায় বেশ কয়েকটি প্রশ্নও উঠে এসেছে। মন্দিরে সিসিটিভি ছিল না ঠিকই। কিন্তু অত বড় একটা পাথরের মূর্তিকে তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় কেউ টের পেলেন না? শাবল-গাঁইতি চালিয়ে মূর্তি মন্দির চত্বর থেকে নিয়ে যাওয়ার সময় কি কোনও শব্দ হয়নি? আনন্দবাজার।

এসআইএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :