যুদ্ধ চাই না তবে আমরা প্রস্তুত: পাক সেনাবাহিনী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৩৬ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর বলেছেন, কাশ্মিরের পুলওয়ামায় সন্ত্রাসী হামলায় পাকিস্তানের জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ ছাড়াই ভারত ইসলামাবাদকে দোষারোপ করেছে। আর তারা যদি কোনো হামলা করে তাহলে আমরা সেনাবাহিনী প্রস্তুত আছে। কিন্তু পাকিস্তান যুদ্ধ চায় না।

শুক্রবার রাওয়ালপিন্ডিতে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘ভারত এখনো দুই দেশ ভাগ হয়ে যাওয়ার বাস্তবতাকে মেনে নেয় নি। ভারত ১৯৬৫ সালে পাকিস্তানের ওপর যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়েছে আর আত্মরক্ষার কথা বলে তারা পরমাণু অস্ত্র বানিয়েছে। তাছাড়া, ভারত সবসময় সন্ত্রাসবাদের নামে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আসছে।’

কাশ্মীরের পুলওয়ামা হামলা প্রসঙ্গে আইএসপিআর’র মহাপরিচালক বলেন, ‘সীমান্ত রেখা বরাবর কয়েক ধাপে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে ভারত। আর হামলা হয়েছে সীমান্ত থেকে কয়েক মাইল ভেতরে। ভারতের এসব সেনাকে এড়িয়ে পাকিস্তানি সেনাদের সেখানে হামলার ঘটনা কতটা যৌক্তিক। এক্ষেত্রে ভারত তাদের সেনাবাহিনীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে।’

আরও পড়ুন>> সেনাবাহিনীকে পাল্টা জবাবের ছাড়পত্র দিলেন ইমরান

তিনি ভারতকে উদ্দেশ্য করে আরও বলেন বলেন, ‘তারা যুদ্ধ শুরুর চেষ্টা করছে কিন্তু আমরা তা চাচ্ছি না। আমরা শুধু আমাদের দেশকে রক্ষার চেষ্টা করছি যা আমাদের অধিকার। তারা হামলা শুরু করলে বিস্মিত হবো না। কিন্তু পাল্টা জবাব পাওয়ার জন্য তারা প্রস্তুত থাকবে আশা করি। পাকিস্তানের সঙ্গে সংঘাতে জড়াতে যাবেন না। সেনারা তাদের শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত মাতৃভূমি রক্ষার জন্য লড়াই করবে।’

জেনারেল আসিফ গফুর ভারতকে সতর্ক করে আরও বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী ভারতকে জবাব দিয়েছেন কিন্তু সামরিক বাহিনীর জবাব হবে ভিন্ন। আমরা আশা করবো ভারত সংলাপের মাধ্যমে শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব গ্রহণ করবে। আর সেটা না হলে পরিস্থিতি ভিন্নরকম হতে পারে।’
সূত্র : পার্স ট্যুডে

এসএ/পিআর