১৪৩ শতাংশ ভোট পড়েছে হিমাচলের বুথে!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩২ পিএম, ২০ মে ২০১৯

গতকাল রোববার ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ দিনে হিমাচল প্রদেশের একটি গ্রামে ভোট পড়েছে ১৪৩ শতাংশ! তবে কারণটা বুথ জ্যাম কিংবা ইভিএম কারচুপি নয়। ভোটারের থেকে ভোট বেশি পড়ার কারণ কারচুপি বলে অভিযোগ উঠতে পারতো কিন্তু ওই গ্রামের প্রত্যেকটি ভোটই বৈধ বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

পাহাড় বেষ্টিত হিমাচল প্রদেশের ওই গ্রামটির নাম তাশিগঙ্গ। ভারত আর চীনের তিব্বত সীমানা ঘেঁষে প্রায় ১৫ হাজার ফুট উচ্চতায় গ্রামটি অবস্থিত। বরফের চাদরে মোড়া ওই গ্রামে ভোটার মাত্র ৭০ জন। গতকাল গ্রামটির মানুষ ১৭ তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট প্রদান করেন।

নির্বাচন কমিশন বলছে, স্থানীয় সময় সকাল সাতটার দিকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। প্রায় শূন্য ডিগ্রির নিচে তাপমাত্রায় চলে ভোটগ্রহণ। মোট ৪৯ জন ভোট প্রদান করেন। যার ২১ জন পুরুষ এবং নারী ১৫ জন। হিসাব করলে ভোটের হার ৭৪ শতাংশ। তাহলে ১৪৩ শতাংশ ভোট পড়ে কীভাবে?

তাশিগঙ্গের বুথটি বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভোটকেন্দ্র বলে পরিচিত। তাই ওই কেন্দ্রে ভোট দিতে চান। তাশিগঙ্গসহ অন্যান্য এলাকায় কর্মরত নির্বাচন কর্মীরা ওই বুথে ভোট দেয়ার আবেদন করেন। ইলেকশন ডিউটি সার্টিফিকেট (ইডিসি) প্রদান করে তাদের ভোট দেয়ার ব্যবস্থা করে দেয় নির্বাচন কমিশন।

হিমাচলের সিপতি উপত্যকায় তাশিগঙ্গের কাছে সবচেয়ে ছোটো বুথ কা। যার মোট ভোটার ১৬ জন। তবে ভোট দিয়েছেন ১৩ জন। তাশিগঙ্গ এবং কা এই দুটি বুথ পড়ে মান্ডি লোকসভার কেন্দ্রের মধ্যে। মান্ডি কেন্দ্রে কুল্লু আর মানালিসহ ১৭টি বিধানসভা রয়েছে।

বর্তমানে ওই কেন্দ্রটি ক্ষমতাসীন বিজেপির দখলে। মূলত কংগ্রেস এবং বিজেপির লড়াই হয় এই কেন্দ্রে। বর্তমান সাংসদ তথা বিজেপি প্রার্থী রাম স্বরূপ শর্মার বিরুদ্ধে আসনটিতে কংগ্রেসের হয়ে লড়ছেন আশ্রয় শর্মা।

এসএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :