কাশ্মীরে লাখো মানুষের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে : প্রিয়াঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪৭ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯

ভারতের প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসের মহাসচিব প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেছেন, জাতীয়তাবাদের নামে লাখো মানুষের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে। রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তিনি ওই মন্তব্য করেন।

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রান্ত ৩৭০ ধারা অপসারণের পর রাজ্যের পরিস্থিতি সম্পর্কে ওই মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, আর কতদিন ধরে এসব চলবে?

শনিবার কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে বিরোধীদলীয় একটি প্রতিনিধিদল শ্রীনগর বিমানবন্দরে পৌঁছায়। কিন্তু প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের বিমানবন্দরের বাইরে পা রাখতে না দিয়ে দিল্লিতে ফেরত পাঠানো হয়।

শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে ফেরার সময় বিমানে এক কাশ্মীরি নারী রাহুল গান্ধীকে তাদের দুর্ভোগের কথা তুলে ধরে কেদে ফেলেন। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও শেয়ার করে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেন, তিনি (কাশ্মীরি নারী) হলেন সেই লাখো মানুষের মধ্যে একজন; যাদেরকে জাতীয়তাবাদের নামে চুপ করানো ও চূর্ণ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘কাশ্মীরে এখন যেভাবে গণতান্ত্রিক অধিকারগুলোকে খর্ব করা হচ্ছে, তার চেয়ে বড় রাজনীতি আর বড় জাতীয়তাবিরোধী কার্যকলাপ আর কিছু হতে পারে না।’

প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এক সাংবাদিকের ভিডিও শেয়ার করেন যাতে দেখা যায়, বিমানের মধ্যে এক নারী রাহুল গান্ধীকে বলেন, বর্তমানে কাশ্মীরের মানুষ খুব দুর্ভোগে রয়েছেন। ওই নারী রাহুল গান্ধীকে বলেন, ছোট ছোট শিশুরা স্কুলে যেতে পারছে না। একে অন্যকে খুঁজতে বাসা থেকে বেরোলে তাদেরকে ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

ওই নারী বলেন, আমার এক ভাই হার্টের রোগী। তিনি নিজ শিশুকে খুঁজতে বেরিয়েছিলেন। তাকে আটক করা হয়েছে এবং ১০ দিন ধরে তার খোঁজখবর পাওয়া যাচ্ছে না যে কোথায় আছে কীভাবে আছে। আমরা সবদিক দিয়ে খুব দুর্ভোগে রয়েছি।

শ্রীনগর থেকে ফিরে শনিবার সন্ধ্যায় রাহুল গান্ধী বলেন, সেখানকার পরিস্থিতি ভালো নয়। আমরা সেখানকার পরিস্থিতি জানতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমাদেরকে বিমানবন্দরের বাইরে বেরোনোর অনুমতি দেয়া হয়নি।

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমাদের সঙ্গে গণমাধ্যমের সদস্যরা ছিলেন। তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়েছে, এ থেকে স্পষ্ট যে জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক নয়

এসআইএস/জেআইএম