সৌদিতে তেলক্ষেত্রে হামলায় কেমন ক্ষতি হয়েছে আরামকোর?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৫৪ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের ড্রোন হামলায় সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন তেল জায়ান্ট কোম্পানি আরামকোর তেল স্থাপনার যে মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে তাতে দেশটির তেল উত্তোলন আবার কবে স্বাভাবিক হবে তা নিশ্চিত নয়। সৌদি আরবের একটি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

গত শনিবার হুথিদের ড্রোন হামলায় আরামকোর আবকাইক ও খুরাইশ স্থাপনা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এর ফলে দেশটির তেল ও গ্যাস উৎপাদন শতকরা ৫০ ভাগ কমে গেছে। সৌদি আরবে তেল উৎপাদন প্রতিদিন ৫৭ লাখ ব্যারেল কম উত্তোলন করা হচ্ছে।

দেশটির তেল শিল্পের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র এ ঘটনা সম্পর্কে রোববার বলেছে, তেলের উৎপাদন আবার কবে স্বাভাবিক হবে তা পরিষ্কার নয়। হামলায় যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা শিগগিরই ঠিক করা যাবে না।

aramco-attacked

আরামকোর পক্ষ থেকেও নতুন করে তেল উৎপাদনের বিষয়টি নিয়ে কোনো সময়সীমা ঘোষণা করা হয়নি।আরামকোর একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছে, ক্ষয়ক্ষতি ঠিক করতে কয়েকদিন নয় বরং কয়েক সপ্তাহ লেগে যাবে।

তবে অন্য একটি সূত্র বলেছে, সৌদি আরবের যে তেলের তহবিল রয়েছে সেখান থেকে তেল রপ্তানি চলতি সপ্তাহ থেকেই স্বাভাবিক করা সম্ভব।

মার্কিন স্যাটেলাইট থেকে তোলা ছবিতে দেখা গেছে, হুথিদের ড্রোন আরামকোর তেল স্থাপনার মোট ১৯ জায়গায় নিখুঁতভাবে হামলা চালিয়েছে। হুথিরা সুস্পষ্ট বিবৃতি দিয়ে শনিবারের এ হামলার দায় স্বীকার করেছে। কিন্তু আমেরিকা ও সৌদি আরবের অনেক কর্মকর্তা ইরানকে হামলার জন্য দায়ী করছেন। ইরান এ অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছে। পার্সট্যুডে।

এসআইএস/জেআইএম