ইয়েমেনের হামলায় সৌদি ড্রোন ভূপাতিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৫৮ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ইয়েমেনের সেনাবাহিনী ও গণপ্রতিরোধ কমিটি দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে সৌদি আরবের একটি ড্রোন ভূপাতিত করেছে। দেশটির সামরিক সূত্র বলছে, তাদের আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিট দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় তায়িজ প্রদেশের আল-বাযায়িয়া এলাকায় ড্রোনটি ভূপাতিত করতে সক্ষম হয়েছে।

এর আগে গত মে মাসে আমেরিকার তৈরি উন্নত ড্রোন এমকিউ-ওয়ান ধ্বংস করে ইয়েমেনির সামরিক বাহিনী।ইয়েমেনে সৌদি সামরিক আগ্রাসন শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ড্রোন ভূপাতিত হয়েছে। তবে মে মাসে ভূপাতিত মার্কিন ড্রোনটিই সবচেয়ে উন্নত বলে ধারণা করা হয়।

সৌদি আরব এবং তার কয়েকটি আরব মিত্র দারিদ্রপীড়িত ইয়েমেনের ওপর সাড়ে চার বছর ধরে আগ্রাসন চালিয়ে আসছে। জবাবে ইয়েমেনের হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধা ও তাদের মিত্র সেনারা পাল্টা হামলা চালিয়ে আসছে।

গত শনিবার সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলের বৃহত্তম আবকাইক ও খুরাইস তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলার পর ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। হামলার পর থেকে দেশটির তেল উৎপাদন দৈনিক ৫ দশমিক ৭ মিলিয়ন ব্যারেল কমে গেছে; যা বিশ্বের সরবরাহকৃত মোট তেলের প্রায় ৬ শতাংশ।

বিশ্বের বৃহত্তম তেলক্ষেত্র হিসেবে পরিচিত সৌদির আবকাইক ও খুরাইস তেলক্ষেত্র। এই দুই তেলক্ষেত্র আক্রান্ত হওয়ার পর বিশ্ব তেল বাজারে বড় ধরনের ধাক্কা লেগেছে। ১৯৯১ সালের পর বিশ্ব বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ।

তেলক্ষেত্রে ভয়াবহ হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্র ‘ইরানের তৈরি’ বলে দাবি করেছে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। সামরিক জোটের এই দাবির পর মধ্যপ্রাচ্যের চিরবৈরী প্রতিদ্বন্দী সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে সামরিক সংঘাতের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। পার্সট্যুডে, রয়টার্স।

এসআইএস/পিআর